Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মদকে হালাল করার চক্রান্ত করলে জনগণ রাস্তায় নেমে আসবে - মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ৮:৪১ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই ২১ বছর বয়সীদের মদ খাওয়ার লাইসেন্স দেয়ার সরকারি পায়তারার গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, জনগণকে মাদকাসক্ত বানানোর চিন্তা থেকে ফিরে না আসলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। তিনি বলেন, ইসলাম মদকে হারাম করেছে। সরকার হালালের চেষ্টা করলে সরকারের জন্য তা সুখকর হবে না। ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে হারাম মদকে হালাল করার চক্রান্ত করলে জনগণ রাস্তায় নেমে প্রতিরোধ করতে বাধ্য হবে।

আজ শনিবার বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মজিলসে আমেলার এক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. আক্কাস আলী সরকার, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারী মহাসচিব হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ ও মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, কেএম আতিকুর রহমান, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মু. বরকত উল্লাহ লতিফ, জিএম রুহুল আমিন, শায়খ ফজলুল করীম মারূফ, মুফতি হেমায়েতুল্লাহ, মুফতি দেলাওয়ার হোসাইন সাকী, মাওলানা নেছার উদ্দিন, মুফতী কেফায়েতুল্লাহ কাশফী, এডভোকেট লুৎফুর রহমান শেখ, এডভোকেট শওকত আলী হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, মাওলানা এবিএম জাকারিয়া। সভায় আগামী ১-৩১ মার্চ দেশব্যাপী দাওয়াত ও সদস্য সংগ্রহ মাস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এ সময়ে সারাদেশে সংগঠনের কেন্দ্রীয়, জেলা, মহানগর, থানা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডসহ সকল পর্যায়ে দায়িত্বশীলগণ দাওয়াতী কাজে অংশ নেবেন এবং নতুন সদস্য সংগ্রহ করবেন।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন (একাংশ) : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর আমির মাওলানা মুহাম্মদ হোসাইন আকন্দ এক বিবৃতিতে ঢালাওভাবে মদ পান এবং কেনাবেচার বৈধতা বা লাইসেন্সের অনুমোদন দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের নীতিমালা জারির তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন। বিবৃতিতে তিনি বলেন, যদি মদের বৈধতা দেয়া হয় এবং সহজলভ্যের কারণে আমাদের সমাজে খুনখারাপি, ধর্ষণ, চুরি ডাকাতি এবং রাহাজানি ব্যাপকভাবে বেড়ে যাবে। যার কারণে সমাজের শান্তি-শৃঙ্খলা এবং মানুষের জানমালের নিরাপত্তা ব্যাপকভাবে হুমকির মুখে পড়ার সম্ভাবনা আছে। মহান আল্লাহ্' আমাদেরকে এবং আমাদের আগামী প্রজন্মকে হেফাজত করুক আমিন। তিনি বলেন, মদের লাইসেন্স দিয়ে হারাম জিনিসকে হালাল করার চক্রান্ত এদেশের মুসলমানরা বরদাশত করবে না।

 



 

Show all comments
  • jack ali ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১০:৩৩ পিএম says : 0
    আপনারা নিজেদেরকে বলেন আপনারা কোরআন হাদিস জানেন জানেন বাংলাদেশ,সিনেমা নাটক গান বাজনা নাচানাচি সহশিক্ষা লিভিং টুগেদার মহিলারা নগ্ন হয়ে সাঁতার কাটে শুধু জাঙ্গিয়ার ব্রা পরে মহিলারা হাফপ্যান্ট পড়ে খেলাধুলা করছে যিনা-ব্যভিচার বিড়ি সিগারেট মহিলারা রাস্তায় অর্ধ উলঙ্গ হয়ে হাটছে ছেলে মহিলারা রাস্তার মধ্যেই চুমাচুমি করছে জড়াজড়ি করছে জোড়ায় জোড়ায় বসে আছে সব জায়গায় পতিতালয় হালাল সুদ হারাম হালাল চাঁদাবাজি হালাল আল্লাহ সুবহানাতায়ালা যত কিছু হারাম করেছে বাংলাদেশের সবকিছু আর আপনারা মদ নিয়ে পড়ে আছেন আমাদের দরকার আমাদের দেশটাকে স্বাধীন করে আল্লাহর আইন দিয়ে দেশ হতে হবে তাহলে সবকিছু বন্ধ হয়ে যাবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ