Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

প্লাস্টিক দিয়ে খেলনা তৈরি

প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

তারিন তাসমী

ছোটদের কাছে খেলনার চেয়ে ভালো উপহার আর হয় না। বেশিরভাগ খেলনাই তৈরি হয় প্লাস্টিক দিয়ে। আপনিও তৈরি করতে পারেন। আশপাশের দোকানে সরবরাহ করে করতে পারেন আয়। প্লাস্টিক দিয়ে যেসব খেলনা তৈরি করা হয় তার মধ্যে গাড়ি, পুতুল, বল, প্লেন, পিস্তল ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এসব খেলনা তৈরির পদ্ধতিও বেশ সহজ।

অল্প পুঁজিতে ব্যবসা অনেক
প্লাস্টিকের খেলনা সহজে ভাঙে না। কম দামেই পাওয়া যায় ছোটখাটো খেলনা। দামে সস্তা রঙিন প্লাস্টিকের খেলনা গ্রাম ও শহরের বাচ্চাদের কাছে সমান জনপ্রিয়। উন্নতমানের প্লাস্টিক দিয়ে খেলনা তৈরি করতে পারলে বিদেশেও রপ্তানি করা সম্ভব। ২৫-৩০ হাজার টাকা মূলধন নিয়ে ছোট আকারে প্লাস্টিকের খেলনা তৈরির ব্যবসা শুরু করা যায়।
দরকার প্রশিক্ষণ

প্লাস্টিকের খেলনা তৈরি শেখার জন্য প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয়। এ জন্য সবচেয়ে ভালো হয় বড় কোনো কারখানার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারলে। প্লাস্টিকের খেলনা তৈরির ব্যবসা করে এমন কোনো অভিজ্ঞ ব্যক্তির কাছেও শেখা যায়।

যা যা লাগবে
স্থায়ী উপকরণ লাগবে স্ট্যাম্প মেশিন, যার দাম পড়বে ২৫০০-২৬০০ টাকা। আরো লাগবে পাঁচটি ডাইস, দাম ৬০০০-৬১০০ টাকা; টেবিল দুটি ১০০০-১১০০ টাকা, হাতপাম্প মেশিন তিনটি ৬০০-৬৫০ ও ফাইলিং মেশিন একটি ১০০০-১১০০ টাকা। মোট খরচ হবে ১১১০০-১১৫৫০ টাকা। কাঁচামাল হিসেবে লাগবে মারলেস পাউডার ১৫০ পাউন্ড ৩৯০০-৪০০০ টাকা, এল গাথেন পাউডার ৬০ পাউন্ড ১৫০০-১৬০০, পিপি পাউডার ৩০ পাউন্ড ৭৫০-৮০০, রিপিট ৩০ কেজি ৭৫০-৮০০, ব্যাগ বা প্যাকেজিং ১০ পাউন্ড ২৮০-৩০০, রশি তিন বান্ডিল ১০৫-১১৫, চায়না রং (লাল, নীল, রুপালি) ২০০ গ্রাম করে ৯০-১০০ টাকা। কাঁচামাল বাবদ মোট খরচ হবে ৭৩৪৫-৭৭১৫ টাকা। হার্ডওয়্যার ও রাসায়নিক দ্রব্য বিক্রির দোকানে পাওয়া যাবে এসব কাঁচামাল।

সাবধানতা
পুরান ঢাকার খেলনা তৈরির কারিগর সুমন মিয়া জানান, প্লাস্টিকের খেলনা তৈরির সময় সাবধান থাকতে হবে যেন বিভিন্ন উপকরণ নাকে-মুখে না লাগে। এ জন্য মুখে মাস্ক এবং হাতে গ্লাভস্ বা দস্তানা ব্যবহার করা উচিত। যন্ত্রপাতি ব্যবহারের সময় অনেক ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে হবে।
লাভের পরিমাণ
স্থায়ী যন্ত্রপাতির অবচয় (ক্ষতি) বাবদ খরচ হবে ১০-১৫ টাকা। কাঁচামাল বাবদ খরচ ১১১০০-১১৫০০ টাকা, ঘরভাড়া বাবদ খরচ ৪০০০-৪৫০০ টাকা, বিদ্যুৎ ও অন্যান্য ১৫০০-১৬০০ টাকা। মোট খরচ হবে ১৬৬১০-১৭৬১৫ টাকা।
উল্লিখিত পাউডারের পরিমাণ দিয়ে ২৮৭ গ্রোস খেলনা তৈরি করা সম্ভব। প্রতি গ্রোস খেলনার পাইকারি দাম ১৪৫ থেকে ১৫০ টাকা। খেলনা বিক্রি করা যাবে ৪১৬১৫ থেকে ৪৩০৫০ টাকা। খরচ বাদে লাভ হবে ২৫০০৫ থেকে ২৫৪৩৫ টাকা। সময় ও স্থানভেদে লাভ কমবেশি হতে পারে।



 

Show all comments
  • Saymon ১ ডিসেম্বর, ২০১৬, ৪:২৮ এএম says : 0
    খুব ভালো- post. এরকম আরো postচাই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।