Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

বিমানে ২০২০ সালের মধ্যে আরো ১৪টি নতুন উড়োজাহাজ যুক্ত হবে

প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে উড়োজাহাজ সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। আর এ কারণে আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনায় হিমশিম খাচ্ছে সংস্থাটি। তবে ২০২০ সালের মধ্যে আরো ১৪টি অত্যাধুনিক এবং সুপরিসরের উড়োজাহাজ বিমান বহরে যুক্ত হচ্ছে বলে কর্র্তৃপক্ষ জানিয়েছেন। বিমান কর্মকর্তারা বলছেন, বিমানের যাত্রী সংখ্যা গত ৯ বছরে দশ গুণ বেড়েছে। এজন্য বিমানের চাহিদাও বেড়েছে। কিন্ত যাত্রী অনুযায়ী উড়োজাহাজ না থাকায় প্রায়ই সিডিউল সমস্যা হয়। বিমানের এমডি মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, নতুন দশটি উড়োজাহাজ সংগ্রহের জন্য ২০০৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বোয়িং এয়ারক্রাফট কো¤পানির সঙ্গে চুক্তি সই করে বিমান বাংলাদেশ। চুক্তির আওতায় চারটি সুপরিসর বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, দুটি ৭৩৭-৮০০ এবং চারটি বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার পর্যায়ক্রমে বিমানের বহরে যুক্ত হবে। আগামী ২০১৯ ও ২০২০ সালের মধ্যে চারটি ড্রিমলাইনার যুক্ত হবে বিমানের বহরে। আগামী দুই বছরের মধ্যে অনেকটা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিমানের এমডি মোসাদ্দেক হোসেন।
গত সেপ্টেম্বরে বহরের দুটি বিমান মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ায় বতমানে বহরে ১০টি উড়োজাহাজ রয়েছে। এ দশটি বিমান নিয়ে চলছে বিমানের পরিসেবা। বহরে পর্যায়ক্রমে আরো ১৪টি উড়োজাহাজ যুক্ত হবে ২০২০ সালের মধ্যে।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বিমান বাংলাদেশের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ বলেন, দুটি বিমান মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ার পর বহরে নতুন দুটি বোয়িং ভাড়া নেয়ার চেষ্টা চলছে। ওই দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের। বিষয়টি এখন পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিশ্বসেরা কো¤পানি থেকে আনা অত্যাধুনিক দুটি বোয়িং এয়ারক্রাফট দিয়ে হংকং, দিল্লি, ভুটান, কলম্বো, গুয়াংজু ও মালদ্বীপ রুট পরিচালনার কথা রয়েছে। এ ছাড়া ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে চালু হচ্ছে ঢাকা-কলম্বো ফ্লাইট। নতুন দুটি বোয়িং (৭৩৭) দিয়ে এ গন্তব্যের রুট পরিচালনা করা হবে। বিমান বহরে বোয়িং কোম্পানীর আরো কয়েকটি অত্যাধুনিক বিমান যুক্ত হবে। চলতি বছর ১২ জানুয়ারি ময়ূরপঙ্খী ও মেঘদূত নামে দুটি এয়ারবাস উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এগুলো এখন বিভিন্ন রুটে চালু আছে।
সূত্র জানায়, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে বর্তমানে বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর মডেলের চারটি, বোয়িং ৭৭৭-২০০ ইআর মডেলের দুটি, বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের চারটি, ড্যাস মডেলের দুটিসহ মোট ১২টি উড়োজাহাজ রয়েছে। এর মধ্যে বোয়িং ৭৭৭-২০০ ইআর মডেলের দুটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেছে। তবে ২০১৭ সালে কানাডা, নিউইয়র্ক, নারিতা ও অস্ট্রেলিয়া রুটেও ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিমানের কর্মকর্তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন