Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সউদীতে বাংলাদেশি নারী নির্যাতনের অভিযোগ নেই

প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শ্রম বাজারে শৃঙ্খলা ফিরেছে : বজলুল হক হারুন, এমপি
স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সউদী আরব সফরের পর সেখানকার বাংলাদেশি শ্রম বাজারে শৃঙ্খলা ফিরেছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ-সউদী আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ বজলুল হক হারুন, এমপি।
গতকাল (শনিবার) জাতীয় সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের সউদী আরব সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ তথ্য জানান।
সউদী আরবে বাংলাদেশি নারী শ্রমিকদের নির্যাতনের অভিযোগের ঘটনা সত্য নয়। বাংলাদেশ-সউদী আরব সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ। গণমাধ্যমে আসা এ সংক্রান্ত তথ্য নিয়েও সন্দেহও প্রকাশ করেছে এ মৈত্রী গ্রুপ। এক সময় বাংলাদেশি নারী শ্রমিক নির্যাতনের খবর পাওয়া যেতে। সউদী সরকার ও বাংলাদেশের পদক্ষেপের কারণে ৯৯ শতাংশ নারী শ্রমিক বর্তমানে স্বচ্ছতার মধ্যে কাজ করছে।
সংবাদ সম্মেলনে বজলুল হক হারুন বলেন, সফরে সউদী আরবের শ্রম ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ দেশটির উচ্চ পর্যায়ের বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে তাদের বৈঠক হবে। আগামীকাল রোববার সকাল ১০টায় শ্রম বাজার, অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনা হবে। চলতি বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সউদী সফরের ফলোআপ হিসেবে এই সফর হচ্ছে বলে জানান হারুন।
তিনি বলেন, আমাদের নারী শ্রমিকদের ব্যাপারে যেসব অভিযোগ গণমাধ্যমে এসেছে সেগুলো এ সফরে গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। নারী শ্রমিক পাচার হচ্ছে বা নারীদের বিক্রি করা হচ্ছে কথাটি সত্য নয়। আমাদের কিছু সমস্যা ছিলো সেগুলো এখন শৃঙ্খলায় ফিরেছে। বলা যায়, ৯৯ ভাগ নারী শ্রমিক নিরাপদ। নারীদের বিক্রি করার কোনো সুযোগ নেই।
এবার হজ শেষে কিছু হাজী দেশে ফেরেনি কথাটি সত্য। তবে সেখানে কেউ থাকতে পারবে না। আমরা সউদী আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশি দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবো। যারা ফিরে আসেননি তাদের কিছু আছে অসুস্থতার কারণে সেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এরপরেও যদি কেউ থাকে তাহলে সে ব্যাক লিস্টেড হবে।
এসময় সাবেক সংসদ সদস্য ও বায়রা সভাপতি বেনজির আহমেদ বলেন, আমরা শিগগিরই এক লাখ ২০ হাজার টাকার মধ্যে সউদী আরবে শ্রমিক পাঠানার ব্যবস্থা করবো। যারা ট্রেনিং গ্রহণ করবে তারা শুধু এক লাখ ২০ হাজার টাকায় যেতে পারবেন।
সউদীতে নারী কর্মী নির্যাতনের বিষয়ে দেশীয় গণমাধ্যমের খবরের প্রসঙ্গ তুলে এ বিষয়ে সউদী সরকারের সঙ্গে আলোচনা হবে কি না- এ প্রশ্নের জবাবে হারুন বলেন, এ বিষয়ে শৃঙ্খলা এসেছে। সউদীতে বাংলাদেশি দূতাবাসের শ্রম উইং কাজ করতে দেয়া নারীদের সিম দেয়, যাতে তারা যোগাযোগ করতে পারে। এখন অভিযোগ শুনি না বললেই চলে। তার পর বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনা করবো।
সংসদীয় প্রতিনিধি দল গতকাল শনিবার রাতে সউদী আরবের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন। সফর শেষে ১৩ নভেম্বর তাদের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।
কমিটির অন্য সদস্যেরা হলেনÑ এ কেএম এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), মো. নূরুল ইসলাম সুজন, মো. নজরুল ইসলাম বাবু, তালুকদার মো. ইউনুস এবং সাবেক সংসদ সদস্য ও বায়রা সভাপতি বেনজির আহমেদ।
উল্লেখ, গত বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি ৮০০ রিয়াল (প্রায় ১৬ হাজার টাকা) বেতনে বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ২০ হাজার গৃহকর্মী নেয়ার ব্যাপারে সউদী সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের একটি চুক্তি সই হয়।



 

Show all comments
  • S. Anwar ৯ মে, ২০১৭, ১২:২৮ পিএম says : 0
    সেখানে নির্যাতিতা বাংলাদেশী নারীরা অভিযোগ করার সুযোগ পেলেইতো।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদীতে বাংলাদেশি নারী নির্যাতনের অভিযোগ নেই
আরও পড়ুন