Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

গৌরনদীতে মন্দির ভাঙচুর ও বিস্ফোরক মামলায় বিএনপি নেতা কাজল জেল হাজতে

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ৭:৪০ পিএম

মন্দির ভাঙচুর ও বিস্ফোরক মামলায় আদালত বরিশাল (উত্তর) জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম কাজলকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কোরআন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্টের নিচে গত বছরের অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ধুরিয়াইল গ্রামের মহানন্দ বাড়ৈ ওরফে মিঠুন বাড়ৈ নামের এক যুবক আপত্তিকর কমেন্ট করে। ১৫ অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যার পরে ওই কমেন্টটি স্থানীয় ইসলাম ধর্মাবলম্বী কয়েকজন ব্যক্তির নজরে আসে। মুহূর্তের মধ্যে তারা ওই কমেন্টটিকে ভাইরাল করে দেয়। এক পর্যায়ে ওইদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে স্থানীয় কিছু লোকজন জোটবদ্ধ হয়ে ধুরিয়াইল কাজিরপাড় দূর্গা মন্দির, পার্শ্ববর্তী কালী মন্দির এবং জগদিশ বৈদ্যর বাড়ির হরিচাঁদ মন্দিরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে।

এ ঘটনায় ১৬ অক্টোবর রাতে ধুরিয়াইল কাজিরপাড় সার্বজনীন দূর্গা মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুভাষ বৈদ্য বাদি হয়ে স্থানীয় ২৪ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫০/৬০জনকে আসামী করে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার একটিতে আসামী করা হয় ঘটনার সময়ে ঢাকায় অবস্থানরত ব্যবসায়ী ও বিএনপি’র সিনিয়র নেতা মোঃ রফিকুল ইসলাম কাজলকে। বুধবার বরিশাল জেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেন কাজল। আদালতের বিচারক এস.এম মাহফুজ আলম এ সময় জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে কাজলকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন ।

আদালতে আত্মসমর্পণের পূর্বে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে দেয়া বক্তব্যে কাজল বলেন, ওই হামলার ঘটনা সম্পর্কে পূর্বাপর আমি কিছুই জানি না। রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি থেকে আমাকে হয়রানীর উদ্দেশ্যে এ মামলায় জড়ানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বরিশাল

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ