Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

শিক্ষার্থীদের মোবাইল কেড়ে পুড়িয়ে দিলেন শিক্ষিকা!

ভিডিও ভাইরাল হতেই নিন্দার ঝড়

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১০:৪৬ এএম

ইদানীং নিয়ম ভাঙলেও ছাত্রছাত্রীদের মারধর করা বারণ। সেকথা ভেবেই হয়তো ইন্দোনেশিয়ার একটি স্কুলে অন্য শাস্তি দেওয়া হল শিক্ষার্থীদের। স্কুলে মোবাইল ফোন আনায় এবং তা ব্যবহার করায় শিক্ষার্থীদের ফোন পুড়িয়ে দিলেন শিক্ষিকারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছে নেটিজেনদের একাংশ।

ঘটনাটি ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ার একটি বোর্ডিং স্কুলে। ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টিকটকের মতো স্যোশাল মিডিয়ায়। ওই ভিডিওতেই দেখা গিয়েছে, একদিকে একদল শিক্ষার্থী দাঁড়িয়ে আছে অসহায়ভাবে, উলটো দিকে একজন শিক্ষক। তিনি শিক্ষার্থীদের হাত থেকে একটার পর একটা মোবাইল ফোন কেড়ে নিচ্ছেন এবং পাশেই জ্বলতে থাকা আগুনে ছুঁড়ে ফেলছেন। দাউ দাউ করে জ্বলে উঠছে ফোন।

ফোন না পোড়ানোর জন্য শিক্ষিকাদের কাছে বারবার অনুরোধ করতে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের। যদিও সে কথায় কান দেননি শিক্ষিকা। নির্মম ভঙ্গিতে নিজের কাজ করে চলেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘটনাটি নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। নেটিজেনদের একাংশের বক্তব্য, শিক্ষকরা শাস্তি দিতেই পারেন, তাই বলে কারও ফোন নষ্ট করার অধিকার নেই কারও। ভিডিওর নিচে একজন নেটিজেন মন্তব্য করেন, “হয়তো বোর্ডিং স্কুলে এমনভাবেই ছাত্রছাত্রীদের শাস্তি দেওয়া হয়। হয়তো এরপর তারা আর শ্রেণিকক্ষে ফোন আনবে না।”

তবে অনেকেই শিক্ষকদের এই কাজের তীব্র নিন্দা করেছেন। এক নেটিজেন লিখেছেন, “যারা শিক্ষক তাদের কাছ থেকে এমন ব্যবহার আশা করা যায় না। এটা জঘন্য কাজ হল। কারও ফোন পুড়িয়ে দেওয়ার অধিকার নেই আপনাদের।” সূত্র: টাইমস নাউ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইন্দোনেশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ