Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

২৯ নাবিকসহ ইউক্রেনে আটকা বাংলাদেশি জাহাজ

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ৮:০৯ পিএম

যুদ্ধে ইউক্রেনের একটি বন্দরে আটকা পড়েছে বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন-বিএসসির জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’। জাহাজটিতে ২৯ জন নাবিক রয়েছেন। তারা সবাই বাংলাদেশি। জাহাজটি বর্তমানে ইউক্রেনের অলিভিয়া বন্দরে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএসসির কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় জাহাজের ক্যাপ্টেনসহ নাবিকদের পরিবারের স্বজনেরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। যদিও বিএসসির কর্মকর্তারা বলছেন, তারা সবাই নিরাপদে আছেন এবং নিয়মিতই তাদের সাথে যোগাযোগ হচ্ছে।

রোববার রাতে বিএসসির নির্বাহী পরিচালক (বাণিজ্য) ড. পীযুষ দত্ত ইনকিলাবকে বলেন, গত ২১ ফেব্রুয়ারি জাহাজটি তুর্কি বন্দর এরেগলি ছেড়ে যায় এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি অলিভিয়া বন্দরে পৌঁছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগেই ওই বন্দর ত্যাগ করার কথা ছিল। এজন্য নিয়ম অনুযায়ী বন্দর ত্যাগ করতে ইউক্রেনের পাইলট চেয়ে রিকুইজিশনও দেয়া হয়। কিন্তু যুদ্ধের ঘনঘটার কারণে তারা পাইলট দিতে পারেনি। এ কারণে জাহাজটি সেখানে আটকা পড়েছে। তবে সেখানে জাহাজ এবং জাহাজের নাবিকেরা নিরাপদে রয়েছেন। তাদের খাবার এবং জ্বালানি তেলেরও কোন সমস্যা নেই। মনোবল শক্ত রাখতে পারলে আশা করি কোন সমস্যা হবে না।

বিএসসির পক্ষ থেকে নাবিকদের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বন্দর ত্যাগ করার সুযোগ পাওয়া মাত্রই জাহাজটি চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওনা দেবে। ইউক্রেন থেকে পণ্য আনতে খালি জাহাজটি গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ওই বন্দরে পৌঁছে। সেখানে পৌঁছার পর পরিস্থিতির অবনতি হলে মালামাল বোঝাই করা ছাড়াই জাহাজটি বন্দর ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু ওই বন্দরের ছাড়পত্র পেতে দেরি হওয়ায় জাহাজটি আটকা পড়ে। বিএসসির কর্মকর্তারা জানান, জাহাজে কমপক্ষে ৪০ দিনের মত পর্যাপ্ত খাবার ও পানি রয়েছে। ওই বন্দর থেকে জাহাজের জন্য জ্বালানিও সংগ্রহ করা যাচ্ছে। আটকে পড়া নাবিকদের মনোবল শক্ত রেখে সতর্কতার সাথে সেখানে অবস্থান করতে বলা হয়েছে।



 

Show all comments
  • Khondaker Mizanur Rahman ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ৮:২৮ পিএম says : 0
    Ok
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্রগ্রাম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ