Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

বিজেপির বিরুদ্ধে ফ্রন্ট গড়ার ডাক মমতার

প্রকাশের সময় : ৭ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারে থাকা ক্ষমতাসীন দল বিজেপির বিরুদ্ধে এবার সরাসরি যুদ্ধ ঘোষণা করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে মোদি সরকারকে হটাতে এখন থেকেই কংগ্রেস ও অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে ফেডারেল ফ্রন্ট গড়ার ডাক দিলেন তিনি। সাম্প্রতিককালে ভারতের অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের পেনশন নিয়ে আন্দোলন ও একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তার আত্মহত্যার ঘটনায় বিরোধী দলগুলোর লাগাতার আন্দোলনের জেরে বেশ কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে বিজেপি সরকার। এর মধ্যেই ওই মৃত সেনাকর্মীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করে দিল্লির যন্তরমন্তরে ধর্নায় বসতে গিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন দিল্লি পুলিশের হাতে দুই দিনে একাধিকবার আটক হন কংগ্রেসের সহসভাপতি রাহুল গান্ধী ও আম আদমি পার্টির একাধিক নেতা। ফলে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর চাপের মুখে মোদি সরকার বেশ বিব্রত। এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেস ও আম আদমি নেতাদের পাশে দাঁড়িয়ে একাধিক টুইটবার্তায় মোদি সরকারকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা, ভারতজুড়ে মোদিবিরোধী হাওয়া তুলে বিরোধীদের এক ছাতার তলে আনার জন্য মমতার হাতে এটাই সবচেয়ে মোক্ষম সময়। এর আগে গত শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ভারতের বেসরকারি হিন্দি নিউজ চ্যানেল এনডিটিভির সম্প্রচার ২৪ ঘণ্টা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়ার পর এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রীতিমতো সমালোচনা করেন মমতা। সে সময় কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তকে জরুরি অবস্থা জারির শামিল বলেও উল্লেখ করেছিলেন তিনি। এছাড়া কয়েকদিন আগে ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের ভূপাল সেন্ট্রাল জেল থেকে পালানো আট সিমিকে পুলিশের গুলি করে হত্যা করা নিয়েও সরব হন তিনি। ওই ঘটনায় সুপ্রিমকোর্টের নজরদারিতে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবিও জানান। বিজেপিবিরোধী সব রাজনৈতিক দলকে নিয়ে আলাদা ফেডারেল ফ্রন্ট গঠনের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে মমতা বলেন, ভারতের অবিজেপি শক্তি সমন্বয়ে গঠিত সেটা ফেডারেল ফ্রন্ট বা অন্য যে কোনো নামও হতে পারে। কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের কাছে তিনি কোনোভাবেই মাথা নত করবেন না বলেও এদিন সাফ জানিয়ে দেন। এবিপি, ওয়েবসাইট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ