Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

ইউক্রেনে আটকে পড়া জাহাজ থেকে ২৮ নাবিককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩ মার্চ, ২০২২, ৯:১৮ পিএম | আপডেট : ১০:৩৫ পিএম, ৩ মার্চ, ২০২২

ইউক্রেনের বন্দরে আটকে থাকা বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের (বিএসসি) জাহাজ এমভি বাংলার সমৃদ্ধিতে রকেট হামলার প্রায় ১০ ঘণ্টা পর ২৮ জীবিত নাবিককে উপকূলে বাংকারে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তারা নিরাপদে আছেন এবং খুব শিগগিরই তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় বিএসসির নির্বাহী পরিচালক ড. পীযূষ দত্ত ইনকিলাবকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সময় ৬টার দিকে বাংলার সমৃদ্ধি থেকে ২৮ নাবিক নেমে গেছেন। তাদের একটি টাগবোট যোগে বন্দর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়। সাথে রকেট হামলায় নিহত থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর রহমানের লাশ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। পোলান্ড দূতাবাসের সহযোগিতায় তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার প্রস্তুতি চলছে। বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টায়) বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের ‘এমভি বাংলার সমৃদ্ধি’ জাহাজে রকেট হামলা হয়। হামলায় জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মো. হাদিসুর রহমান মৃত্যুবরণ করেন। বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের জাহাজটি গত ২২ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে পৌঁছে। ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরু হয়ে যাওয়ায় ২৯ নাবিকসহ সেখানেই আটকা পড়ে জাহাজটি। ইউক্রেন থেকে সিরামিকের কাঁচামাল নিয়ে তাদের ইতালিতে যাওয়ার কথা ছিল।

যাদের উদ্ধার করা হলো-
জাহাজের মাস্টার জিএম নুর ই আলম।
এমডি মনসুরুল আমিন। এডিশনাল মাস্টার। তিনি ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
সেলিম মিয়া, এসিও অক্টোবর ২০২১ থেকে কর্মরত।
রামাকৃঞ্চ বিশ্বাস, সেকেন্ড অফিসার। ২০২২ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
এমডি রুকনুজ্জামান রাজিব। থার্ড অফিসার। ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে কর্মরত।
ফারিয়াতুল জান্নাত তুলি। ডিসি-১, ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
ফয়সাল আহমেদ সেতু ডিসি-২, ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে কর্মরত।
মোহাম্মদ ওমর ফারুক, চিফ ইঞ্জিনিয়ার। ১৬ মার্চ ২০২১ তেকে কর্মরত।
সৈয়দ আরিফুল ইসলাম, এডিশনাল চিফ ইঞ্জিনিয়ার। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে কর্মরত।
রবিউল আউয়াল, সেকেন্ড ইঞ্জিনিয়ার। ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে কর্মরত।
সালমান সারোয়ার সামি, চতুর্থ ইঞ্জিনিয়ার। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
ফারজানা ইসলাম মৌ, ইসি-১। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ শেখ সাদি, ইসি-২। ৬ অক্টোব্র ২০২১ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে এই জাহাজে কর্মরত।
জামাল হোসাইন, বসুন। ১২ ডিসেম্বর ২০২১ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ হানিফ, এবি-১।১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম,এবি-২। ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মহিন উদ্দিন, এবি-৩। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
হোসাইন মোহাম্মদ রাকিব, ওএস-১। ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
সাজজাদ ইবনে আলম, ওএস-২। ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে কর্মরত।
নাজমুল উদ্দিন, ফিটার। ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, ইলেকট্রিশিয়ান। ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে জাহাজে কর্মরত।
সারোয়ার হোসাইন, অয়েলার-১। ৬ অক্টোবর ২০২১ সাল থেকে জাহাজে কর্মরত।
মাসুম বিল্লাহ, অয়েলার-২। ১৯ জানুয়ারি ২০২২ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ হোসাইন, অয়েলার-৩। ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, ফায়ারম্যান। ৬ অক্টোবর ২০২১ থেকে জাহাজে কর্মরত।
মোহাম্মদ শফিকুর রহমান, চীফ কুক। ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে কর্মরত।
মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, জিএস। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে এই জাহাজে কর্মরত। ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্রগ্রাম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ