Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

যেসব কারণে ডায়াবেটিস হতে পারে

| প্রকাশের সময় : ১১ মার্চ, ২০২২, ১২:২৮ এএম

ডায়াবেটিস এবং স্মৃতিভ্রংশের মত রোগ কখনোই চিকিৎসায় ভালো হয় না। তবে বিশেষ চিকিৎসার মাধ্যমে জীবন-যাপনে পরিবর্তন আনার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। সাধারণত বয়স ৪০-এর পরে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হতে দেখা যায় বেশি। তবে এই রোগের কারণগুরো নিশ্চয়ই এর আগের বছরগুলোতেই ঘটে থাকে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে এমনই ৯টি কারণ তুলে ধরা হল যেগুলো ঘটতে না-দিলে আপনি হয়তো ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকে বাঁচতে পারেন। জেনে নেওয়া যাক কী সেই কারণগুলো যেগুলোর ফলে আপনার ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে।

১. কফি পান না-করা- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টি এইচ চ্যান স্কুলের এক গবেষনায় দেখা গেছে, যাঁরা নিয়মিত কফি পান করেন তাঁদের ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৩৩ শতাংশ কমে আসে। কারণ কফিতে থাকা কিছু উপাদান দেহে ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স কমিয়ে আনে।

২. খাদ্য তালিকায় প্রোবায়েটিকস না-থাকা- প্রোবায়েটিক জাতীয় খাদ্য দেহে স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়ার হার বাড়ায়, যা দই বা ছানাজাতীয় খাদ্যে পাওয়া যায়। প্রোবায়েটিকজাতীয় খাদ্য না খেলে অন্ত্রে প্রদাহ সৃষ্টি হতে পারে যা থেকে আবার ইনসুলিন প্রতিরোধক সৃষ্টি হতে পারে। যার ফলে ডায়াবেটিস হয়।

৩. প্লাস্টিক কন্টেনারে খাবার খাওয়া- প্লাস্টিক কন্টেনার থেকে খাবার বা পানীয় খেলে ডায়াবেটিস হতে পারে। কেন না প্লাস্টিক কন্টেনারে এমন কিছু রাসায়নিক থাকে যেগুলো ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স সৃষ্টি করতে পারে এবং রক্তচাপও বাড়িয়ে দিতে পারে। এ থেকে ডায়াবেটিস হতে পারে।

৪. রোদে বের না-হওয়া- আপনি যদি ঘর থেকে খুব কম বের হন এবং গায়ে রোদ না-লাগান তাহলে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে চলেছেন। গায়ে পর্যাপ্ত রোদ না-লাগার কারণে ভিটামিন ডি-র ঘাটতি দেখা দিতে পারে। আর ভিটামিন ডি-র ঘাটতি থেকেও ডায়াবেটিস রোগ হয়।

৫. ডেস্ক জব- আপনি যদি সারাক্ষণ টেবিলে বসে থাকার দরকার হয় এমন চাকরি করেন বা নিয়মিত শরীর চর্চা না-করেন তাহলে আপনার পেটে চর্বি জমে যাবে। পেটের চর্বিও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার একটি অন্যতম কারণ।

৬. প্রাতঃরাশ না- খাওয়া আপনি যদি অতি ব্যস্ত জীবন-যাপন করেন এবং নিয়মিতভাবেই সকালের খাবার না-খেয়ে থাকেন তাহলে আপনার টাইপ-টু ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি যে অনেকট্ইা তা বলা বাহুল্য। কারণ, সকালবেলা থেকে দীর্ঘ সময় ধরে না-খেয়ে থাকলে দেহে ইনসুলিনের মাত্রার হেরফের ঘটে যায় যা থেকেও ডায়বেটিস হয়।

৭. পানিশূন্যতা- পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি না-খেলে দেহে পানিশূণ্যতা দেখা দেয় আর তা থেকে সৃষ্টি হয় হাইপারগ্লিসেমিয়া, যার ফলে রক্তে সুগারের মাত্রা ঘনীভূত হয় এবং ডায়াবেটিস রোগ সৃষ্টি হয়।

৮. বিশেষ কিছু সুগন্ধি- আপনি যদি পারফিউম, কোলোন, রুম ফ্রেশনার প্রভৃতি নিয়মিত ব্যবহার করেন তাহলে আপনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে আছেন উচ্চমাত্রায়। কারণ এসবে থাকা কিছু রাসায়নিক উপাদান দেহে ইনসুলিনের ভারসাম্য নষ্ট করে এবং ডায়াবেটিস রোগ সষ্টি করে।

৯. দূষিত গোশত- অনেক সময় মাংস পরিষ্কার করার জন্য কীটনাশক এবং অন্যান্য রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। এ -ধরনের গোশত খেলে হাইপারগ্লিসেমিয়া হয় বা রক্তে সুগারের মাত্রা বেড়ে যায়। যার ফলে ডায়াবেটিস রোগ হয়।

১০. রাতে ফাস্টফুড খাওয়া- খেয়েই ঘুমানো, ঘুম থেকে ভোররাতে না উঠে বিলম্বে ওঠা, হাটাহাটি না করলেও ডায়াবেটিস হতে পারে।

আফতাব চৌধুরী
সাংবাদিক-কলামিস্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডায়াবেটিস


আরও
আরও পড়ুন