Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

শব্দের থেকে ৫ গুণ বেশি গতিতে পৃথিবীতে আছড়ে পড়ল গ্রহাণু

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০২২, ১:২৮ পিএম

পৃথিবীতে আছড়ে পড়ল গ্রহাণু। এমনই দাবি করলেন কানাডার ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিজ্ঞানী। তিনি জানিয়েছেন, গ্রিনল্যান্ডের একটি পরিত্যক্ত অঞ্চলে সেই গ্রহাণু আছড়ে পড়েছে। তবে সেই ঘটনায তেমন কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

বিজ্ঞানীদের দাবি, শনিবার (১২ মার্চ) ভোরে (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী) দিকে 'ইবি৫' নামে গ্রহাণু আছড়ে পড়েছে। কানাডার ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং বিজ্ঞানী পিটার ব্রাউন জানান, শনিবার ভোর ৪ টা ২৭ মিনিট থেকে ভোর ৫ টা ৩১ মিনিটের (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী) মধ্যে আইসল্যান্ড উপকূলের কাছে ‘ইবিB৫' নামে গ্রহাণু আছড়ে পড়েছে বলে ‘ইনফ্রাসাউন্ডে’ ধরা পড়েছে। যে গ্রহাণুর প্রস্থ তিন থেকে চার মিটার ছিল। প্রতি সেকেন্ডে গতি ছিল ১৫ কিলোমিটার।

মার্কিন মহাকাশ সংস্থার নাসার তরফে হিসাব করা হয়েছিল যে, গ্রহাণুর আকার এক মিটারের মতো হবে। তবে কানাডার ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের তথ্য অনুযায়ী, আদতে সেই গ্রহাণুর আকার তিন থেকে চার মিটার ছিল। গতিও যা ছিল, তা আদতে শব্দের থেকে পাঁচ গুণ বেশি বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের মতে, 'ইবি৫' নামে ওই গ্রহাণুর যা গতিবেগ ছিল, তাতে মারাত্মক প্রভাব ফেলতে পারত। এমন বিস্ফোরণ হতে পারত যে তা পাঁচটি গ্রেনেড বিস্ফোরণের সমান হত। তবে বায়ুস্তরে ঘর্ষণ এবং আকারে ছোটো হওয়ায় ব্যাপকতা কম ছিল। সেইসঙ্গে ভাগ্যবশত পরিত্যক্ত জায়গায় আছড়ে পড়েছে সেই গ্রহাণু।

উল্লেখ্য, শুক্রবার নাসা দাবি করেছিল, কয়েক ঘণ্টার মধ্যে চারটি গ্রহাণু পৃথিবীর গা ঘেঁষে বেরিয়ে যাবে। কানাডার ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের দাবি, 'ইবি৫' নামে গ্রহাণুটি সত্যিই পৃথবীতে আছড়ে পড়েছে। বাকি যে তিনটি বড় গ্রহাণু ছিল, তা পৃথিবীর কাছ থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। পৃথিবীতে আছড়ে পড়েনি। সূত্র: স্পেসডটকম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মহাকাশ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ