Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

গরমে দ্রুত ওজন কমাবে যে পানীয়

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০২২, ১০:৪৬ পিএম

ওজন কমাতে কতজনই না কতকিছু করেন। কেউ মানেন কঠোর ডায়েট, তো কেউ আবার শরীরচর্চায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তবে গরমে শরীরচর্চা করা বেশ কঠিন। আবার এ সময় প্রচুর ঘাম ঝরে। ফলে সে অনুযায়ী পানিও পান করতে হয়। না হলে দেখা দিতে পারে পানিশূন্যতা বা ডিহাইড্রেশন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, গরমে নিয়মিত ডাবের পানি ও শরবত খেলে ওজন কমবে তাড়াতাড়ি। তবে এ সময় কোল্ড ড্রিংক কিংবা আইসক্রিম খেলে কিন্তু ওজন কমাতে পারবেন না।

ওজন কমাতে শরীরের জন্য ডিটক্সিফিকেশন খুবই জরুরি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। আর তা করতে পারে ডিটক্স ওয়াটার।

শরীরে প্রয়োজনীয় ভিটামিন আর মিনারেলসের জোগান দেয় এসব পানীয়। আবার ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়াতে সাহায্য করে এসব পানীয়। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক কোন পানীয় খেলে গরমে দ্রুত কমবে ওজন-

গরমে দ্রুত ওজন কমাবে যে পানীয়

>> শসায় থাকে ভিটামিন সি, বিটা ক্যারোটিন ও ম্যাঙ্গানিজ। তাই শসা দিয়েও তৈরি করতে পারেন ডিটক্স ওয়াটার। এজন্য অর্ধেক শসা স্লাইস করে কেটে নিন।

এরপর কাচের বোতলে শসার টুকরোগুলো দিয়ে আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। সারাদিন এ পানি পান করুন।

>> লেবু ও আদা দিয়েও একইভাবে তৈরি করতে পারেন ডিটক্স ওয়াটার। লেবুতে থাকে ভিটামিন সি। এটি দেহের টক্সিন খুব দ্রুত বের করে দেয় বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ওজন কমাতে সাহায্য করে আদাও। প্রতিদিন আদা আর লেবুর তৈরি ডিটক্স ওয়াটার খেলে ওজন কমবে দ্রুত।

>> গরমে পুদিনা পাতা সাহায্য করে। এছাড়া ওজন কমাতে এর বিশেষ ভূমিকা আছে। অন্যদিকে ওজন কমাতে লেবু আর শসার তো বিকল্প নেই।

এই তিন উপকরণ মেশালে ওই পানি আরও পুষ্টিকর হয়ে ওঠে। যা দ্রুত ওজন কমাতে সাহায্য করে।

>> স্ট্রবেরি, লেবু ও পুদিনা দিয়েও তৈরি করতে পারেন বিশেষ ডিটক্স পানীয়। এজন্য স্ট্রবেরি, লেবু ও পুদিনা মিশিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন। সারাদিন এই পানি পান করুন। এতেই ফ্যাট ঝরবে তাড়াতাড়ি।

>> তরমুজ খেতে সবাই পছন্দ করেন। তবে অতিরিক্ত তরমুজ কিন্তু ওজন বাড়ায়। তাই এ সময় তরমুজ দিয়েও তৈরি করতে পারেন ওজন ঝরানোর ডিটক্স ওয়াটার।

তরমুজে থাকে প্রচুর আয়রন। পুষ্টিবাদদের মতে, এক কাপ তরমুজের সঙ্গে ৮টি পুদিনা পাতা ও কয়েকটি বরফ মিশিয়ে রাখুন। মেদ ঝরাতে সারাদিন এই ডিটক্স ওয়াটার পান করুন।

সূত্র: এমএসএন



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ