Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

যুদ্ধের প্রস্তুতি ন্যাটোর, স্কটল্যান্ডের রাস্তায় পরমাণু অস্ত্রবোঝাই ট্রাক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মার্চ, ২০২২, ১২:০৫ এএম

চারটি ট্রাকের মধ্যে তিনটিতে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। দক্ষিণ গ্লাসগো সিটি সেন্টার থেকে দেড় কিমি দূরে সড়কে ট্রাকগুলো নজরে এসেছে। সংস্থাটি মনে করছে, ওই অস্ত্রগুলো নিয়ে যাওয়া হচ্ছে লোচ লং-এ রয়্যাল নৌবাহিনীর কাছে। সম্প্রতি রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধপরিস্থিতিতে নিউকওয়াচের আশঙ্কা, ন্যাটোর যুদ্ধপ্রস্তুতির অঙ্গ হিসাবে অস্ত্রগুলো জড়ো করা হচ্ছে। তবে কি রাশিয়ার বিরুদ্ধ পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি শুরু করে দিল ন্যাটো? গত শুক্রবার ন্যাটোভুক্ত দেশ স্কটল্যান্ডের বৃহত্তম শহর গ্লাসগোর সড়কে একটি কনভয় নজরে এসেছে। যে কনভয়ের মাঝে ছিল চারটি ট্রাক। যে ট্রাকগুলোতে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে বলে দাবি করছে নিউকওয়াচ নামে একটি পরমাণু অস্ত্রবিরোধী সংস্থা। সংস্থাটির দাবি, ওই চারটি ট্রাকের মধ্যে তিনটিতে মোট ছটি পরমাণু অস্ত্র রয়েছে। একটি ট্রাক খালি রয়েছে বলে দাবি করেছে সংস্থাটি। নিউকওয়াচ জানিয়েছে, অস্ত্র পরিবহনের জন্য সাধারণত শহরের ওই রাস্তাটিই ব্যবহার করে সেনা। এর আগে ২০২১ সালের মে মাসে ওই সড়ক দিয়ে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র বহনকারী ট্রাক যেতে দেখেছিল সংস্থাটি। পরমাণু অস্ত্রবিরোধী ওই সংস্থাটির সদস্য জেন ট্যালেন্টস বলেন, প্রতিটি ট্রাক দুটি করে পরমাণু অস্ত্রবহন করতে পারে। একটি ট্রাক খালি রাখা হয় কারণ কোনো ট্র্যাকে সমস্যা দেখা দিলে যাতে ওই ট্রাকটিকে ব্যবহার করা যায়। তাই যেহেতু চারটি ট্রাক রয়েছে ধরে নেয়া যেতে পারে তিনটি ট্রাকে দুটি করে মোট ছটি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। জেনের কথায়, গত বছরের অক্টোবরের পর এই সড়ক দিয়ে আর কোনো অস্ত্র নিয়ে যেতে দেখা যায়নি। কিন্তু সাম্প্রতিক যুদ্ধের পরিস্থিতিতে পরমাণু অস্ত্র পরিবহনের মধ্যে একটা সন্দেহ থেকেই যায়। এবিপি।



 

Show all comments
  • Asraf Mirza ২২ মার্চ, ২০২২, ৭:১০ এএম says : 0
    পুতিনের স্বপ্ন রাশিয়াকে আবার ইউএসএসআর গঠন করা। পুতিনের লক্ষ্য পূরণ না হওয়া পর্যন্ত যুদ্ধের সমাপ্তি হবে না। পূর্ব ইউরোপে ন্যাটোর সম্প্রারণবাদ নীতি শেষ করা এবং ন্যাটো জোটে ভেঙ্গে দেওয়া।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Faruque Ahmed ২২ মার্চ, ২০২২, ৭:১১ এএম says : 0
    ভ্লাদিমির পুতিন ইউরোপের শান্তি ছিন্নভিন্ন করে দিলেন ঠিক একই ভাবে ইউরোপ আমেরিকা ইস্রায়েল, আফগানিস্তান ইরাক ইয়ামেন সিরিয়া ফিলিস্তিন লিবিয়ার শান্তি ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছে আজও আফগান থেকে ফিলিস্তিনের মানুষ ক্ষুধার্ত, তখন ইউরোপ আমেরিকার মানবতা কোথায় ছিল। পশ্চিম-ঘনিষ্ঠ ইউক্রেনের পশ্চিমাদের দালালীর সাজা ভোগ করতেই হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Huq Noman ২২ মার্চ, ২০২২, ৭:১১ এএম says : 0
    এ যুদ্ধ থেকে রাশিয়ার কোন প্রাপ্তি হবে বলে মনে হয় না। বরং এতে রাশিয়া দীর্ঘ মেয়াদি ক্ষতির মুখে পড়বে। ইউক্রেনও এই ক্ষতির অংশীদার হবে। লাভ হবে চীন এবং পশ্চিমা বিশ্বের। চীনের গুরুত্ব বাড়বে। রাশিয়া তার অবস্থান হারাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Zakir Jacky ২২ মার্চ, ২০২২, ৭:১১ এএম says : 0
    পুতিন চাচ্ছে ইউক্রেনে গনতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠিতো হোক। যেখানে কথা বলার অধিকার থাকবে ন্যয়বিচার থাকবে ইত্যাদি কিন্তু পশ্চিমা হলুদ মিডিয়া প্রচার করছে সেখানে নাকি রাশিয়া শিশু আর সাধারণ মানুষ কে মেরে শেষ করে দিচ্ছে। রাশিয়া তো শুধু কয়টা পটাকা ফাটিয়েছে মাত্র তাও গনতান্ত্রিক রাষ্ট্র বানানোর জন্য।
    Total Reply(0) Reply
  • কৌশিক দাশ জয় ২২ মার্চ, ২০২২, ৭:১২ এএম says : 0
    রাশিয়ার উদ্দেশ্য নিজের নিরাপত্তা নিশ্চিত। আর জেলেনস্কির উদ্দেশ্য আমেরিকার এজেন্ডা বাস্তবায়ন তাতে দেশের যত ক্ষতিই হোক কিচ্ছু যায় আসে না
    Total Reply(0) Reply
  • মো.আহসান নবী ২২ মার্চ, ২০২২, ৯:২৫ পিএম says : 0
    এই যুদ্ধে রাশিয়ার জয় হওয়া খুবই জরুরী। যাতে করে আমেরিকা পরাশক্তি হিসেবে অল্প হলেও খর্ব হয়। বিশ্ব ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ খুবই জরুরী হয়ে পড়েছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুদ্ধের প্রস্তুতি ন্যাটোর
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ