Inqilab Logo

রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

টেস্টে লড়াইটা হবে সমানে-সমানে

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ মার্চ, ২০২২, ১২:০৩ এএম

দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে এবার গিয়েই ওয়ানডে সিরিজ জিতে বড় সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ। তার আগের সবগুলো সফর ছিল চরম হতাশার। সেই দুঃস্বপ্নের ভান্ডারে এবার গয়েছে প্রাপ্তিযোগ। প্রথম বারেরমতো ওয়ানডে সিরিজ জয়। এবার টেস্ট জয়ের মিশন। আগামীকাল ডারবানে শুরু হবে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি। তবে তার আগে কিংসমিডে বৃষ্টির বাধায় বাংলাদেশের অনুশীলনে ঘাটতি পড়েছে দুদিন। ডারবান টেস্ট সামনে রেখে সেই ঘাটতি পুষিয়ে নিতে এখন অনুশীলনে ব্যস্ত মুমিনুল-তামিমরা। গতকাল যখন অনুশীলন করছিল দল, একটু দূরে দাঁড়িয়ে সংবাদকর্মীদের সঙ্গে কথা বলছিলেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। খেলোয়াড়দের ফুরফুরে মেজাজে অনুশীলনের আওয়াজ ভেসে আসছিল। বোঝা গেল, টেস্ট সিরিজ সামনে রেখে বেশ চাঙা মুমিনুল হকের দল। তবে কোচ ডমিঙ্গো মনে করিয়ে দিলেন, এটা আলাদা সংস্করণ। ওয়ানডে সিরিজের সাফল্য টেস্ট সিরিজে তেমন কোনো কাজে আসবে না। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জেতায় বাংলাদেশ দলের এখন ফুরফুরে মেজাজে থাকাই স্বাভাবিক। কিন্তু সংবাদকর্মীদের সঙ্গে কথা বলার সময় ডমিঙ্গো স্মরণ করিয়ে দিলেন, ‘এটা আলাদা সংস্করণ, যেখানে আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে।’
নিউজিল্যান্ডের মাটিতে এই টেস্ট সংস্করণেই জিতেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে গত জানুয়ারিতে প্রথম টেস্টে মাউন্ট মঙ্গানুইতে নিউজিল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। সে সিরিজে তামিম ইকবাল কিংবা সাকিব আল হাসানের মতো অভিজ্ঞরা ছিলেন না। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ, টেস্ট সিরিজে সাকিব না থাকলেও তামিমকে পাচ্ছেন অধিনায়ক মুমিনুল। সে হিসাবে টেস্ট সিরিজেও বাংলাদেশ দলের প্রেরণাদীপ্ত থাকা উচিত না? সংবাদকর্মীদের এই প্রশ্নের জবাবে ডমিঙ্গো বললেন, ‘আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কঠিন সিরিজই আশা করছি। খেলা হচ্ছে ওদের মাঠে। নিউজিল্যান্ডে সিরিজ ড্র করাটা প্রেরণার, ছেলেরাও ভালোই খেলছে। টেস্ট দলটাও উন্নতি করছে। দলে ভারসাম্য এসেছে। আমরা এখানে আশা নিয়ে এলেও জানি সিরিজটা কঠিন হবে।’
সে ক্ষেত্রে সিরিজটা শুধু বাংলাদেশের জন্যই কঠিন হবে নাকি দক্ষিণ আফ্রিকার জন্যও—যেহেতু ওয়ানডে সিরিজ হেরে মানসিকভাবে স্বাগতিকেরা একটু পিছিয়ে আছে। আইপিএল শুরু হওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দলও ওয়ানডের মতো শক্তিশালী হবে না। ডমিঙ্গো এককথায় বললেন, ‘হ্যাঁ, দুই দলের জন্যই কঠিন হবে।’ ওয়ানডে সিরিজে খেলা দুই তারকা পেসার কাগিসো রাবাদা ও লুঙ্গি এনগিডিকে পাচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকা। এটা বাংলাদেশের জন্য সুযোগ, খেলোয়াড়েরা সে সুযোগ দুই হাত ভরে গ্রহণ করতে পারবেন কি না, এ প্রশ্নের জবাবে ডমিঙ্গো বললেন, ‘তবু ওদের দলে শক্তির গভীরতা আছে। তরুণ কিছু ভালো খেলোয়াড় আছে, বিশেষ করে পেস বিভাগে। তারা একটু চাপে থাকবে। দলে নিজেদের জায়গা নিশ্চিত করতে চাইবে। এটা আমাদের জন্য বাড়তি সুবিধা হলেও তারা কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকারই প্রতিনিধিত্ব করবে। অর্থাৎ ভালো খেলোয়াড় নিয়েই তারা মাঠে নামবে।’
টেস্ট সিরিজে ভালো করার পথটাও জানিয়ে দিলেন বাংলাদেশ দলের এই কোচ, ‘বেসিকটা ঠিক রাখতে হবে। ক্রিকেট এমন কিছু না যা কেউ বুঝতে পারবে না। বড় রান করতে হবে, ক্যাচ নিতে হবে আর শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে পাঁচ দিন ধরে।’ নিউজিল্যান্ড সফরে তিন বিশেষজ্ঞ পেসারসহ চার বোলার খেলিয়েছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ আফ্রিকার পেসবান্ধব উইকেটে কয়জন বোলার খেলবেন—চারজন না পাঁচজন? দলের কৌশল আগেভাগে না জানাতে খুব স্বাভাবিকভাবেই ক‚টনৈতিক উত্তর দিলেন ডমিঙ্গো, ‘নির্বাচকদের সঙ্গে বসে এটি ঠিক করব।’
কিংসমিডের উইকেট পেসবান্ধব। বল ওঠে। কেপটাউনে বাংলাদেশ দল এই উইকেট মাথায় রেখে যে অনুশীলন করেছে, ভালোই কাজে লাগবে বলে মনে করেন দক্ষিণ আফ্রিকান এই কোচ, ‘আমরা কেপটাউনে ১০ দিনের দারুণ অনুশীলন করেছি (হাত দিয়ে পেছনে কিংসমিডের উইকেট দেখিয়ে), এমন উইকেটেই অনুশীলন করেছি। দল তাতে লাভবান হয়েছে। তবে উইকেটে বাউন্স থাকলেও গতি তেমন একটা হবে না।’
ডমিঙ্গো মনে করেন উইকেট পেসবান্ধব হলেও স্পিনারদেরও সুযোগ আছে কিংসমিডের মাঠে। শ্রীলঙ্কার হয়ে রঙ্গনা হেরাথ এবং দক্ষিণ আফ্রিকার কেশব মহারাজের এ মাঠে ভালো করার উদাহরণ টানলেন বাংলাদেশ কোচ। হেরাথ এখন বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ। তার কাছ থেকে এ মাঠে ভালো বল করার টোটকা নিশ্চয়ই পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজরা।
দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথমবার ওয়ানডে সিরিজ জয়ের মতো টেস্ট সিরিজেও কি ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন দেখছেন ডমিঙ্গো? এই শেষ প্রশ্নে ডমিঙ্গো পেছনে অনুশীলন করা খেলোয়াড়দের দেখিয়ে বললেন, ‘আমি ইতিহাস গড়িনি। ছেলেরা ইতিহাস গড়েছে। নিজেদের মাঠে ওরা খুব ভালো। সিরিজটা কঠিন হবে, তবে আমরা প্রতিদ্ব›িদ্বতা করতেই এসেছি।’
সিরিজের শেষ ম্যাচটি হবে আগামী ৮ এপ্রিল, পোর্ট এলিজাবেথে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টেস্ট


আরও
আরও পড়ুন