Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

শেরপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০১ এএম

শেরপুর জেলার সদর উপজেলার কামারেরচর ইউনিয়নে ডোবারচর বাজারে পূর্বশক্রতার জেরে গতকাল বেলা ১২টার দিকে দু’দল এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে দোকান ভাংচুর ও সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ শান্তি শৃংখলা রক্ষার্থে এবং উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করতে ৬০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি, রাভার কারতুজ ও গ্যাস কারতুজ ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অনুকূলে আনে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শেরপুর সদর উপজেলার ডোবারচর বাজারের রড সিমেন্ট ব্যবসায়ী আক্রাম হোসেন লেবু ও চাঁন মিয়া মেম্বারের সাথে একই গ্রামের পন্ডিত বাড়ি এলাকার মহির উদ্দিনের ছেলে আ. রাজ্জাক, আসাদ, হাবিব এর সাথে একটি সমিতির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৩ এপ্রিল বাকবিতাণ্ডর জের ধরে গতকাল আ. রাজ্জাক, আসাদ, হাবিব গ্রুপ ও মোবারক, বাবু গ্রুপের শহস্রাধিক এলাকাবাসী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ ঘটনায় গিয়ে ৪ জন পুলিশ আঘাত প্রাপ্ত হয়ে শেরপুর জেলা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এঘটনায় লাঠিশোটা, ধারালো অস্ত্র এবং ইটের ঢিলের আঘাতে কামারেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেনসহ অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। অন্যান্য আহতরা হচ্ছেন, জাহাঙ্গীর, আ. রেজ্জাক আ. মোমেনসহ অনেকে।
এদের মধ্যে ৫ জনকে শেরপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর ছুটি দেয়া হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষই শেরপুর সদর থানায় মামলা দায়ের করে নাই। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিতে পরিচালিত অভিযানে পুলিশ সাত জনকে গ্রেফতার করেছে।
খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনসুর আহাম্মদ, ওসি (তদন্ত) বন্দে আলী মিয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে। শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া জানান, আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হলেও একটা বড় ধরনের গন্ডগোলকে থামিয়ে নিয়ন্ত্রনে এনেছি।
বর্তমানে পরিস্থিত স্বাভাবিক রয়েছে। এখন পর্যন্ত ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। এঘটনায় এখনো আমরা কোন পক্ষের নিকট থেইে কোন অভিযোগ পাইনি। তবে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে সাত জনকে আটক করা হয়েছে। তবে আবারো কেউ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভিন্নখাতে নিতে চাইলে আমরা কঠোর হস্তে দমন করবো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শেরপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ