Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

শেখ হাসিনার হাতে দেশ থাকলে পরিণতি হবে শ্রীলঙ্কার

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০০ এএম

সরকার পুরো দেশটাকেই এখন নরকপুরিতে পরিণত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, গ্যাস নেই, চুলা ঠাণ্ডা, রাস্তায় যানজট, বিদ্যুতের সীমাহীন লোডশেডিং, দুর্গন্ধময় ওয়াসার ময়লা পানি, বাজারে আগুন। চাঁদাবাজি, ছিনতাই, সড়কে মৃত্যু, খুন, ডায়রিয়াসহ নিত্যপণ্যের দাম আওয়ামী সিন্ডিকেট লাগামহীন ঘোড়ার পিঠে চড়িয়ে দিয়েছে। বেশির ভাগ মানুষ চরম অর্থনৈতিক সঙ্কটে নিপতিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন শেখ হাসিনার হাতে দেশ থাকলে অচিরে শ্রীলংকার মতো করুণ পরিণতি ভোগ করতে হবে। গতকাল বুধবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, রমজানের প্রথম দিন থেকেই সরকারের ব্যর্থতা আর ইচ্ছাকৃত অব্যবস্থাপনার শিকার হয়ে সাধারণ মানুষের জীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। লোডশেডিংয়ের পাশাপাশি এখন চলছে গ্যাসশেডিং। বিদ্যুৎ যাচ্ছে-আসছে। এই আছে, এই নেই। লাইনে পানি আছে তো গ্যাস নেই। আবার গ্যাস থাকলে, পানি নেই। তীব্র গ্যাস সংকটে রোজা রেখে ইফতারিও তৈরি করতে পারছে না তারা। বাসায় যখন গ্যাস নেই, তখন তৈরি হয়েছে আরেক দুঃসংবাদ। ফের বাড়ানো হয়েছে এলপিজির দাম। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে বাইরে থেকে ইফতারি কেনা মানুষের জন্য তৈরি করছে বাড়তি সংকট। রাজধানীর যানজট এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, ঘর থেকে বেরোলেই স্থবির হয়ে যায় জীবন। যানজটে অলিগলি, প্রধান সড়ক সর্বত্রই এখন স্থবিরতা। একে তো তীব্র গরম, তার ওপর অসহনীয় যানজট, জীবন যেন ওষ্ঠাগত। তীব্র যানজটের কারণে লোকজনকে এখন ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্তায় থাকতে হচ্ছে।

ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখন রাজধানীবাসীর আরেক আতঙ্কের নাম ডায়রিয়া। প্রতি মিনিটে ১ জন এবং প্রতিদিন হাজারেরও বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালে। বিশেষ করে শিশুদের নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন অভিভাবক মহল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওয়াসার দূষিত পানির কারণে এই ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

রিজভী বলেন, সরকার বড় বড় কথা বলে, সারাক্ষণ সপ্তসুরে গলাবাজি করে। ছবিতে বড় বড় ফ্লাইওভার, উড়াল সেতু বড় বড় ব্রীজ, মেগা প্রকল্প, দোতলা-তিনতলা রাস্তার ছবি দেখান যে, উন্নয়নে ভেসে যাচ্ছে দেশ। একেবারে প্রবল উন্নয়নের জোয়ারে বাংলাদেশ সয়লাব-এসব উন্নয়নের গল্প শুনতে শুনতে জনগণ ক্লান্ত হয়ে গেছে। আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা আশংকা করছেন, বর্তমান পথ না ছাড়লে বাংলাদেশের পরিণতিও একই হবে। কেবলই সময়ের অপেক্ষা। সরকারের দুই মন্ত্রীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের বিএনপি বিষয়ক দুই গবেষক ওবায়দুল কাদের ও হাসান মাহমুদ সাহেব এবং এদের সাথে মাঝে মাঝেই যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রীর আইটি বিষয়ক উপদেষ্টা। দুই দিন আগে তিনি ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে জানিয়েছেন, বিএনপির আমলে বিদ্যুৎ সংকটে নাকি দেশ অন্ধকারে ছিল। গ্রামে ৪/৫ ঘন্টা বিদ্যুৎ থাকে না, আর শহরে তো লোডশেডিং আছেই। একটি সরকার একটানা একযুগের বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকার পরও নিজেদের কোনো কৃতিত্ব নেই। তাদেরকে এখনো বিএনপির সঙ্গে তুলনা করেই তাদের রাজনৈতিক অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে হয়।

এছাড়া সরকারের অব্যবস্থাপনায় হাওর রক্ষা বাঁধ উঁচু ও টেকসই করে নির্মাণ না করা এবং সংস্কার কাজ যথাযথ না হওয়ায় ভারতের মেঘালয়-চেরাপুঞ্জি থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে বিস্তৃর্ণ হাওরাঞ্চলের ফসলের ক্ষতি হয়েছে। অব্যবস্থাপনা-অনিয়ম ও লুটপাটের বিচার আর বছরে একটি মাত্র ফসল হারা কৃষকদের কান্নার দায় কার? সে প্রশ্নও রাখেন রিজভী।

এদিকে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে মতিঝিলে প্রচারপত্র বিলিকালে ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনকে গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি। অবিলম্বে তার নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংবাদ সম্মেলনে রিজভী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ