Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিরোধীদলকে আটকে সরকার একতরফা নির্বাচন করতে চায়

মিথ্যা মামলা প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০০ এএম

নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকার বিরোধী দল দমনের নতুন খেলা শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সামনে নির্বাচনের ঢোল আবার বাজছে। নির্বাচন নির্বাচন খেলা করে তারা (সরকার) নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চায়, সমস্ত বিরোধী দলকে আটক করে মিথ্যা মামলা দিয়ে তারা একতরফা ভাবে নির্বাচন করে নিতে চায়।

গতকাল শনিবার দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির জন্য সরকারের ব্যর্থতাকে দায়ী করে মির্জা ফখরুল বলেন, প্রত্যেকটি জিনিসের দাম বেড়ে গেছে। অর্থনৈতিক খাতে চরম দুর্নীতি চলছে। এরা সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ এবং শুধু ব্যর্থ নয়। এরা দেশের ক্ষতি করছে। তাই আর একদিন/দুইদিন যদি এদেরকে রাখা যায় এদেশের অস্তিত্ব থাকবে না। আসুন যত দ্রুত সম্ভব নিজেদেরকে সংগঠিত করে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সরকারকে সরিয়ে সত্যিকার অর্থেই একটা জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। কেনো ডায়েরিয়া সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, আইসিডিডিআর‘বি কালকে বলেছে যে, ৬২ বছরে এতো রোগী কখনো আসেনি। কেনো এতো রোগী? কারণ এই ঢাকা শহরে প্রত্যেকটি টেপের পানি দূষিত পানি। আপনি গিয়ে দেখেন লাইনের যে পানি সেগুলোতে দুর্গন্ধ ও ব্যাক্টেরিয়াতে বোঝাই। তার ফলে আজকে প্রতিদিন প্রায় ১৪শ/১৫শ লোকের ডায়রিয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী রান্নার নতুন রেসিপি প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, এই রোজার মাস আমরা একটা শশা কিনতে পারি না, বেগুন কিনতে পারি না। দুঃখ হয় যখন প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে রান্নার নতুন রেসিপি দেন। সেই রেসিপি কী? তিনি বলেছেন যে, মিষ্টি কোমড়া দিয়ে বেগুনি বানাও। কারণ তারা পারছে না বেগুন দিতে, শশা দিতে, চাল-ডাল দিতে তখন তারা এ সমস্ত কথা বলছে।”

তিনি বলেন, তথ্যমন্ত্রী বলেছেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির পেছনে বিএনপির কারসাজি আছে। সব সময় তিনি এটা বলে এবং বলে যে, যা কিছু ঘটে তার পেছনে নাকী বিএনপি আছে। আরে ভাই বিএনপি যদি সব কিছু ঘটাতে পারে তাহলে তোমরা ক্ষমতায় আছো কেনো? ক্ষমতা ছেড়ে দাও, বিএনপির হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দাও দেখো আমরা দেশ চালাতে পারি কিনা।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার হচ্ছে শুধুমাত্র সেই সব লোকের সরকার, মুষ্টিমেয় কয়েকটা লোককে বড়লোক করার জন্য গোটা রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে তারা ব্যবহার করছে। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে কি করছে, যারা প্রতিবাদ করছে তাদেরকে তারা গ্রেফতার করছে, সাজা দিচ্ছে, মিথ্যা মামলা দিচ্ছে। এই দেখেন মতঝিলে শ্রমিক দলের একটা প্রোগ্রাম থেকে ইশরাক হোসেনকে গ্রেফতার করেছে, শ্রমিক দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে। কেনো ইশরাককে গ্রেফতার করলেন? কারণ সে প্রতিবাদ করেছিলো, শ্রমিক দলের নেতা-কর্মীদের কেনো মামলা দিলেন? তারা প্রতিবাদ করেছিলো। তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে নতুন খেলা শুরু করেছে।

শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে ও প্রচার সম্পাদক মনজুরুল ইসলাম মঞ্জুর সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার, কেন্দ্রীয় নেতা হুমায়ুন কবির খান, ফিরোজ-উজ-জামান মোল্লা, শ্রমিক দলের আবুল খায়ের খাজা, আবুল কালাম আজাদ, মেহেদি আলী খান, জাহাঙ্গীর আলম, আসাদুজ্জামান বাবুল, মোস্তাফিজুল করীম মজুমদার, জুলফিকার মতিন, কাজী আমীর খসরু, খোরশেদ আলমসহ নেতবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।###



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ