Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

ভারতের চার রাজ্যে সাম্প্রদায়িক সংঘাতে খুন, ১৪৪ ধারা জারি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০৪ এএম

ভারতের ৪ রাজ্যে সাম্প্রদায়িক সংঘাত হয়েছে। এই রাজ্যগুলো হলো গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড ও পশ্চিমবঙ্গ। ইতোমধ্যে গুজরাটের সংঘাতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আইনশৃংখলা বাহিনী ও প্রশাসনের বরাত দিয়ে সোমবার এক প্রতিবেদনে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উৎসব রাম নবমী উপলক্ষে আয়োজিত মিছিল থেকে এই দাঙ্গার সূত্রপাত। খবরে বলা হয়, রাম নবমীর মিছিল ঘিরে উত্তেজনা বিরাজ করছে ভারতের চারটি রাজ্যে। এসব রাজ্য হলো গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, ঝাড়খণ্ড ও পশ্চিমবঙ্গ। এদিকে, গুজরাটে সংঘর্ষে একজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন এলাকায় জারি রয়েছে ১৪৪ ধারা। জানা গেছে, গুজরাটের রাজধানী গান্ধীনগর থেকে ৭০ কিমি দূরে হিম্মতনগর এবং ১২৫ কিমি দূরে খামভাতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাজ্যের পুলিশ মহাপরিচালক (ডিজিপি) আশিস ভাটিয়া বলেন, ‘রাম নবমী মিছিল যখন মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা দিয়ে যাচ্ছিল, সে সময় পাথর নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। তারপরই সহিংসতার ঘটনা ঘটতে শুরু করে। তবে পরিস্থিতি এখন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’ এসময় তিনি নিশ্চিত করেন, খামভাতে সংঘর্ষের জেরে এক বৃদ্ধ প্রাণ হারিয়েছেন। এদিকে, রাম নবমীতে আমিষ খাওয়া নিয়ে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) দুই ছাত্র সংগঠনের সদস্যদের সংঘর্ষে ১৬ জন আহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, কাবেরি হোস্টেলের মেন্যুতে ভেজ এবং নন-ভেজ উভয়ই অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। তবে রোববার নন-ভেজ খাবার তৈরি ও খাওয়া বন্ধ করে দেয় এবিভিপি কর্মীরা। এই পরিস্থিতিতে এবিভিপি কর্মী ও বামপন্থী ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হন। জেএনইউ ছাত্র ইউনিয়নের নেত্রী ঐশী ঘোষ অভিযোগ করেন, অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের (এবিভিপি) সদস্যরা তাদের আমিষ খেতে বাধা দেন। তাদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়ার অভিযোগও করেন তিনি। এদিকে, এবিভিপির তরফে পাল্টা অভিযোগ করা হয়েছে যে হোস্টেলে পূজা করতে বাধা দিয়েছে বামপন্থী শিক্ষার্থীরা। এরই জেরে দুপক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই। এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারতের চার রাজ্যে সাম্প্রদায়িক সংঘাতে খুন
আরও পড়ুন