Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

নির্দোষ ব্যক্তিকে সাজা প্রদান বিচারক ইমরুল কায়েশের অপসারণ চেয়ে রিট

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০৫ এএম


এবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ, অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এবং মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনের অপসারণ চেয়ে রিট হয়েছে। ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে ভুল ব্যক্তিকে সাজা দেয়ার অভিযোগে দায়ের করা হয়েছে এ রিট। গতকাল মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট বদিউজ্জামান তপাদার এ রিট ফাইল করেন।

বিচারপতি ফারাহ মাহবুব এবং বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের ডিভিশন বেঞ্চে রিটটির শুনানি হবে বলে জানান এই আইনজীবী। রিটে আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ প্রধান, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল, ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ, ডিএমপি কমিশনার, বার কাউন্সিলের সচিবসহ ১০ জনকে বিবাদী করা হয়েছে রিটে। এতে বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ, অতিরিক্ত পিপি তাপস কুমার পাল, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন তুহিন ও আসামিপক্ষের আইনজীবীকে তাদের দায়িত্ব থেকে অপসারণ করে তাদের বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে নাÑ এই মর্মে রুল জারির আবেদন জানানো হয়েছে। সেইসঙ্গে রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তাদেরকে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখতে আদেশ চাওয়া হয়েছে।
রিটের বিষয়ে অ্যাডভোকেট বদিউজ্জামান তপাদার বলেন, একজন আসামির পরিবর্তে অন্য একজন নির্দোষ ব্যক্তিকে আসামি সাজিয়ে খিলগাঁও থানার একটি মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা চার্জশিট দাখিল করেন। এ মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তার সাক্ষ্যের ভিত্তিতে সেই নির্দোষ ব্যক্তিকে ৬ বছর সশ্রম কারাদÐ দেন বিচারক ইমরুল কায়েশ। তিনি বলেন, আমার মক্কেল রায়ের ধার্য তারিখে হাজির ছিলেন না। পরে গিয়ে তিনি জানতে পারেন তার বিরুদ্ধে রায় হয়েছে। রায়ে তার ৬ বছর সাজা হয়েছে। তিনি এ মামলার আসামি না। এ মামলার প্রকৃত আসামির বাড়ি নারায়ণগঞ্জে। আর আমার মক্কেলের বাড়ি চাঁদপুরে। এই নির্দোষ ব্যক্তিকে সাজার প্রদানের বিষয়ে আগে সংশ্লিষ্টদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। নোটিশের প্রেক্ষিতে কোনো প্রতিকার না পাওয়া রিট করা হয়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ