Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আমতলীতে শিক্ষক নিয়োগ -বাছাই কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষার অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আমতলী (বরগুনা) উপজেলা সংবাদদাতা

বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ (৩য় ধাপ) আমতলী উপজেলা ও বরগুনা জেলা যাচাই বাছাই কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নতুন নিয়োগ প্রদানের পাঁয়তারা করছেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। তথ্য সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলার পশ্চিম গুলিশাখালী বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ৫ জন শিক্ষক সাইদুল ইসলাম লিমন, সাখাওয়াত হোসেন, সেলিনা আফরোজ, জেসমিন আক্তার ও শাহনাজ পারভিনের নামসহ বিগত ২৩-০৩-২০১৬ তারিখে বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ উপজেলা যাচাই বাছাই কমিটি কর্তৃক অনুমোদিত হয়ে জেলা যাছাই বাছাই কমিটির বরাবর প্রেরিত হয়। জেলা যাচাই বাছাই কমিটি বিগত ২২-০৫-২০১৬ তারিখ তালিকার ২০নং ক্রমিকে অন্তভুক্ত করে অনুমোদন ক্রমে জেপ্রাশিঅ/বরগুনা/৭৭৩/১০নং স্মারকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর প্রেরণ করেন। বিদ্যালয়টি এখন ৫ জন শিক্ষকসহ চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। বিশ্বস্তসূত্রে জানা গেছে, ইতিপূর্বে ২০০৪ সালে স্কুল ম্যানেজিং কমিটি কর্তৃক নিয়োগকৃত ফজিলাতুন্নেছা, স্বামী মো. মস্তফা শিং জাতীয়করণের সম্ভবনা না থাকায় ২০১০ সালে লিখিতভাবে পদত্যাগ দাখিল করেন এবং স্কুল ম্যানেজিং কমিটি কর্তৃক তা গৃহীত হয়। ৫/৬ বছর পর উক্ত ফজিলাতুন্নেছাকে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নতুন করে নিয়োগ দেয়ার পাঁয়তারা করছেন। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মুঃ জাহিদ উদ্দিন (ভারপ্রাপ্ত) মোবাইলে জানান, আমার চাকরি দেয়ার কোন ক্ষমতা নাই, টাকা নেয়াতো দূরের কথা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আমতলীতে শিক্ষক নিয়োগ -বাছাই কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষার অভিযোগ
আরও পড়ুন