Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ব্যাটসম্যানদের উপর মহাবিরক্ত তামীম

প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা
চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে কি দুর্দান্ত শুরু ই না করেছিল চিটাগাং ভাইকিংস। তবে দারুণ শুরুর পর যেখানে উজ্জীবিত হওয়ার কথা তামীমের দলের, সেখানে হয়েছে উল্টোটা। ছন্দ হারিয়ে টানা ৩ হার চিটাগাং ভাইকিংসের। ৬ বলে ৭ রানের টার্গেট পাড়ি দিতে পারেনি, খুলনা টাইটান্সÑ মাহামুদুল্লাহ’র শেষ ওভার থ্রিলারে হেরে গেছে সেই ম্যাচ। ড্রেসিংরুম থেকে বার বার বার্তা পাঠিয়ে কাজ হয়নি, কথা শোনেননি ব্যাটসম্যানরাÑ ওই ম্যাচে হেরে এ অভিযোগই তুলেছিলেন চিটাগাং ভাইকিংস অধিনায়ক তামীম। গতকাল ১১৬ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপের পর শেষ ৪১ বলে কেন ৪৭’র বেশি রান তুলতে পারবে না ব্যাটসম্যানরা, তাতে মহা বিরক্ত তামীম। বরিশাল বুলসকে ১৬৪’র চ্যালেঞ্জ দিয়ে ৭ উইকেটে হেরে যাওয়ায় ম্যাচ শেষে সেই অসন্তোষই প্রকাশ করেছেন তামীমÑ ‘আমি শুধু একা নই, এরকম খেলা দেখতে দেখতে আপনারাও অসন্তুষ্ট হবেন। যে ওভারে আমি আউট হইছি, ওই ওভার থেকে শেষ ওভার পর্যন্ত আমাদের হাতে নয় উইকেট ছিল, এর মাঝখানে আমরা চল্লিশ রান (হবে ৪৭ রান)  করেছি। ব্যাটিং লাইন আপ থেকে এমনটা প্রত্যাশা কেউ করবে না। যতো ভালো প্লেয়ার আনা হোক, যতোই ভালো কোচ থাকুক না কেন, এভাবে করে খেলতে থাকলে বিপর্যয় থামানো সম্ভব নয়।’
দারুণ একটা অবস্থানে দলকে রেখে তিন নম্বরে এনামুল বিজয়কে পাঠানোয় কৌশলটা বুমেরাং হয়েছে, তা অবশ্য মনে করছেন না তামীমÑ ‘বিজয়কে তিন নম্বরে পাঠানোর কারণ হচ্ছে, সে প্রতিপক্ষ দলের বোলারদের অন্যদের চেয়ে ভালো জানে। দলে অনেক বিদেশী আছে যারা হয়তো কামরুল ইসলাম রাব্বিকে আগে খেলেনি, আল-আমিনকে খেলেনি আই থট হি ডিড আ ডিসেন্ট জব। কিন্তু অন্যপ্রান্ত থেকে ও (ডুয়াইন স্মিথ) যদি আরেকটু ভালো খেলতো তাহলে হয়তো বা আমরা ১৭০ থেকে ১৮০ করতাম। যখন আমি আউট হই তখন আমরা ওভারে প্রায় নয় করে রান তুলছিলাম। সেখান থেকে শেষ আট ওভারে চল্লিশ রান তোলাটা মেনে নেয়া যায় না। আমাদের টিমে, এক-দুইজন ছাড়া সবাই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। কিন্তু আমরা যেভাবে পারফর্ম করছি, তা মোটেও ভালো হচ্ছে না। সত্যি বলতে কি, ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের জন্যও খারাপ লাগছে। কারণ তারা গত বছর থেকেই অসাধারণ কাজ করছেন। আমরা তাদেরকে প্রতিদানে কিছুই দিতে পারছি না।’
বড় টার্গেট তাড়া করে বরিশাল বুলস’র ২ টপ অর্ডার ডেভিড মালান এবং শাহরিয়ার নাফিস ম্যাচ বের করে নেয়ায় তামীম বিস্মিতÑ ‘আজ ওদের যে দুইজন আজ রান করেছে, তারা কেউই মুশফিক কিংবা তিসারার মতো বিগ হিটার নন। কিন্তু তাদেরকে প্রতি ওভারে বাউন্ডারি দিয়ে দেয়া হলো। তিসারা কিংবা মুশফিক ভাল বলেও ছয় মারতে পারে, কিন্তু ওই দু’জন ব্যাটসম্যানের কাছ থেকে তো এটা আশা করিনি আমরা।’
ওয়ানডে ক্রিকেটে তামীম ক্যারিয়ারের শুরুতে ওপেন করেছেন শাহরিয়ার নাফিসের সঙ্গে। এক সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটের উজ্জ্বল নক্ষত্র শাহরিয়ার নাফিস হারিয়ে গেছেন। বাংলাদেশ দলে জায়গা হারানো সেই বাঁ হাতি টপ অর্ডার চলমান বিপিএলে অন্য এক শাহরিয়ার নাফিসে আবির্ভূত। ৪ ইনিংসে তিন তিনটি ফিফটি! বরিশাল বুলসের এই ওপেনারের ব্যাটিং দেখে রীতিমতো অভিভুত তামীমÑ ‘আমি ওনার এর আগের ইনিংসটা মাঠে বসে দেখেছি, প্রথম ইনিংসটা টিভিতে দেখেছি। আর আজ তো মাঠেই দেখলাম।  এই মুহূর্তে বিপিএলে সবচেয়ে ভালো ব্যাটিং করছেন উনি। মনে হচ্ছে টি-টোয়েন্টি ফরমেটে রান করার জন্য উনি অনেক কাজ করেছেন এবং তিনি সফলতাও পাচ্ছেন। আমিও তার ব্যাটিং খুব উপভোগ করছি। যেই শটসগুলা আগে তিনি খেলতেন না, এখন সেগুলোও খেলছেন।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।