Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিদ্যুৎ লাইনের আশেপাশে ঘুড়ি ওড়ানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০৩ এএম

বিদ্যুৎ লাইনের আশেপাশে ঘুড়ি ওড়ানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। গতকাল রোববার প্রতিমন্ত্রী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এই আহ্বান জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ লাইনের আশেপাশে ঘুড়ি ওড়ানো থেকে বিরত থাকুন। এতে অনেক সময় অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা ঘটছে। এর কারণে মাঝে মাঝে বিদ্যুৎ বিভ্রাট হচ্ছে। নিজে সচেতন হোন, অন্যদেরও সচেতন করুন।
পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশের (পিজিসিবি) গণবিজ্ঞপ্তিতেও এই আহ্বান জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে সেøাগান আকারে বলা হয়, বিদ্যুৎ লাইনের কাছাকাছি ‘ঘুড়ি’ ওড়ানো পরিহার করুন, অনাকাক্সিক্ষত বিদ্যুৎ বিভ্রাট ও জানমালের ক্ষতির আশঙ্কামুক্ত থাকুন।
বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে মানুষের মধ্যে ঘুড়ি ওড়ানোর প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বড়-ছোট বিভিন্ন আকৃতির এসব ঘুড়ি অনেক সময় সুতা ছিড়ে গিয়ে, অথবা ওড়ানোর সময়ই বিদ্যুতের সুউচ্চ টাওয়ার এবং তারের মধ্যে আটকে যায়। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিস্তৃত ৪০০ কেভি, ২৩০ কেভি এবং ১৩২ কেভি সঞ্চালন লাইনে আটকে থাকা ঘুড়ি/মোটা সুতা ঝড়বৃষ্টিতে ভিজে শর্ট সার্কিট হয়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটাতে পারে। এছাড়া ভেজা অবস্থায় মোটা সুতা বিদ্যুতের তারের সংস্পর্শে থাকলে এবং সেই সুতা জনবসতি এলাকায় পড়ে থাকলে বিদ্যুতায়িত হয়ে জানমালের অনাকাক্সিক্ষত ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। সারা দেশে চলমান কালবৈশাখী বা ঝড়বৃষ্টি মৌসুমে এ আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে। তাই বিদ্যুতের লাইন, উপকেন্দ্র ও টাওয়ারের কাছাকাছি স্থানে ঘুড়ি ওড়ানো পরিহার করতে সবাইকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিদ্যুৎ লাইনের আশেপাশে ঘুড়ি ওড়ানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ