Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সেলিম খানের বিদেশযাত্রায় দুদকের নিষেধাজ্ঞা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০১ এএম

চাঁদপুরের লক্ষ্নীপুর মডেল থানার আলোচিত ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম খানের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে আদালত। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)র আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল ঢাকার মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এ নিষেধাজ্ঞা দেন। গতকাল মঙ্গলবার সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহাম্মদ আরিফ সাদেক এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, সেলিম খানের বিরুদ্ধে চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণের নামে ৩৬০ কোটি টাকা লোপাটের চেষ্টা ও দীর্ঘদিন ধরে পদ্মা-মেঘনা নদীতে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার অভিযোগের বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে দুদক। ইতিমধ্যেই অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে সংস্থাটি। এ পরিস্থিতিতে সেলিম খান যাতে কিছুতেই দেশ ছেড়ে পালাতে না পারেন এ লক্ষ্যে তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা চাওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ২২ এপ্রিল দুদক সচিব মো: মাহবুব হোসেন সেলিম খানের বিষয়ে তথ্য-প্রমাণ হাতে পাওয়ার কথা জানান। তিনি বলেন, চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি অধিগ্রহণ সম্পর্কে আমরা প্রাথমিকভাবে জেনেছি, জেলা প্রশাসন যখন ওই জমির মূল্য নির্ধারণ করে তখন বিষয়টি ধরা পড়ে। লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সেলিম খান উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে জমির অতিরিক্ত মূল্য দেখিয়ে অন্তত: ১৩৯টি দলিল করেছেন। এতে জমির বিক্রি-ক্রয় দেখিয়েছেন, যাতে মৌজামূল্য বাড়িয়ে ২০ গুণ দেখানো হয়। ওই প্রাক্কলনে যাতে বর্ধিত মূল্যটি আসে তার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু জেলা প্রশাসন বিষয়টি বুঝতে পারায় পরে তিনি আর এটি নিয়ে অগ্রহসর হতে পারেননি। কিন্তু দলিল এবং তার প্রসেস তিনি নিয়েছিলেন। তিনি যদি সফল হতেন তাহলে সরকারের ৩৬০ কোটি টাকা গচ্ছা যেতো। এ বিষয়ে প্রাথমিক রেকর্ডপত্র কমিশনের হস্তগত হয়েছে। এ কাজে তিনি সফল না হলেও এটি একটি জালিয়াতি। সেলিম খান চাঁদপুর পদ্মা-মেঘনা থেকে অনুমতি ছাড়াই নির্বিচারে বালু উত্তোলন করেন। কারণ বালু মহল ইজারার একটি বিষয় রয়েছে। এখানে যদি সেরকম কোনও কিছু না থাকে তাহলে তিনি কীভাবে বালু উত্তোলন করছেন, কত দিন ধরে তুলছেন-এ বিষয়গুলো আমাদের এনফোর্সমেন্ট টিম সেখানে গিয়েছিল। তারা জেলা প্রশাসন, জেলা রেজিস্ট্রারের কার্যালয়সহ সংশ্লিষ্ট দফতরের কাছ থেকে আরও তথ্য নিচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদকের নিষেধাজ্ঞা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ