Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৭ আষাঢ় ১৪২৮, ০৯ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আজান নিষিদ্ধ করে ইসরাইল ধর্মযুদ্ধ বাধাতে চায়

প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ফিলিস্তিনি মসজিদগুলোতে মাইকে আজান দেয়ার উপর বিধিনিষেধ আরোপ করার একটি ইসরাইলি উদ্যোগ মধ্যপ্রাচ্যের ওই এলাকাটিকে আরো অস্থিতিশীল করে তুলবার আশঙ্কা সৃষ্টি করেছে। ফিলিস্তিনের একজন কর্মকর্তা বলছেন, ইসরাইলের সাম্প্রতিক কিছু উসকানিমূলক কর্মকা- থামানোর জন্য তারা জাতিসংঘের দ্বারস্থ হবেন বলে ভাবছেন। নাবিল আবু রুদেইনার ভাষ্য, অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের বৈধ করার এবং আজানের শব্দ বন্ধ করে দেয়ার যে উদ্যোগ ইসরাইল নিয়েছে তা ওই এলাকায় বিপর্যয় ডেকে আনবে। গত রোববার ইসরাইলি মন্ত্রীরা দুটি বিল উত্থাপন করেন, এর একটিতে পশ্চিম তীরের অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের উচ্ছেদ করার একটি কর্মসূচি বন্ধ করার কথা বলা হচ্ছে। অপর বিলটি মূলত মুসলিমদের উপর প্রভাব ফেলবে। এতে মসজিদ থেকে দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত আজানের উপর বিধিনিষেধ আরোপের কথা বলা রয়েছে। ইসরাইলের মোট জনগোষ্ঠীর ২০%-ই আরব এবং তাদের অধিকাংশই মুসলমান। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, আজানের শব্দ সীমিতকরণের এই উদ্যোগ মূলত বহু ইসরাইলি নাগরিকের অভিযোগের
পরিপ্রেক্ষিতে নেয়া হয়েছে। পার্স টুডে, বিবিসি ও রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আজান নিষিদ্ধ করে ইসরাইল ধর্মযুদ্ধ বাধাতে চায়
আরও পড়ুন

কোয়েটায় এক মাদ্রাসাকে লক্ষ্য করে বোমা বিস্ফোরণ : এক পথচারী আহত

img_img-1624246447

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানের কোয়েটায়  স্যাটেলাইট টাউনের একটি মাদ্রাসার কাছে আইইডি বিস্ফোরণে একজন আহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা ইসহাকাবাদ এলাকায় একটি উন্নত বিস্ফোরক যন্ত্রসহ একটি মোটর মোটরসাইকেল পার্ক করে এবং রিমোট কন্ট্রোল দিয়ে আইইডিটির বিস্ফোরণ ঘটায়। -ডন (ইংরেজি)   ওই বিস্ফোরণে একজন পথচারী আহত হয়েছেন। আশেপাশের কয়েকটি দোকান এবং আশপাশের বিল্ডিংয়ের জানালা ভেঙে যায়। পুলিশ আহত ব্যক্তিকে সিভিল হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেছে।"বিস্ফোরণের সম্ভাব্য লক্ষ্য ছিল মাদ্রাসা দারুল উলূম শরিয়া" বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত চলছে বলেও