Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

‘বিদ্যুৎ গতিতে জবাব’ দেয়ার কড়া হুঁশিয়ারি পুতিনের

রাশিয়া তার লক্ষ্য অর্জন করবে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০২ এএম

সরবরাহ বন্ধ করতেই জ্বালানির জন্য পুতিনের দরজায় ইউরোপ!
পূর্ব ইউক্রেনের গ্রামগুলো নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে রুশ সেনা
ইউক্রেনের অস্ত্রের ডিপো উড়িয়ে দিল রুশ কালিব্র
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, কোন দেশ ইউক্রেন যুদ্ধে হস্তক্ষেপ করলে তাকে সমুচিত জবাব দেয়া হবে। ‘আমাদের সব ধরনের উপকরণ আছে... দরকার হলে আমরা তা ব্যবহার করবো,’ বলেছেন পুতিন। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে, রাশিয়া তার সামরিক লক্ষ্য অর্জন করবে।

সেন্ট পিটার্সবার্গে রাশিয়ান আইন প্রণেতাদের সাথে আলাপকালে বুধবার পুতিন বলেন, ‘২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া ডনবাস এবং ইউক্রেনে যে বিশেষ সামরিক অভিযান আমরা পরিচালনা করছি, তার সমস্ত কাজ নিঃশর্তভাবে সম্পন্ন করা হবে।’ তিনি বলেছেন, ‘কেউ যদি বাইরে থেকে ইউক্রেনে হস্তক্ষেপের চেষ্টা করে ও রাশিয়ার জন্য কৌশলগত হুমকি সৃষ্টি করে, তাহলে আমরা বিদ্যুৎ গতিতে জবাব দেব।’ মনে করা হচ্ছে যে, এ বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্রের কথাই বলেছেন। তবে যুদ্ধে যেন রাশিয়াকে ইউক্রেন হারাতে পারে, সেজন্য ইউক্রেনের সহযোগী দেশগুলো অস্ত্র সরবরাহ বাড়িয়েছে।

গত সপ্তাহেই কিয়েভের আশপাশের এলাকা থেকে সেনা প্রত্যাহারের পর রাশিয়া ডনবাস অঞ্চলে ব্যাপক আক্রমণ চালিয়েছে। ওদিকে রাশিয়া পোল্যান্ড ও বুলগেরিয়ায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার পর ইউরোপিয়ান কমিশন রাশিয়ার বিরুদ্ধে বø্যাকমেইলিংয়ের অভিযোগ তুলেছে। কমিশনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, রাশিয়া প্রমাণ করেছে যে সরবরাহকারী দেশ হিসেবে তারা নির্ভরযোগ্য নয়। তবে ক্রেমলিন বলেছে, পশ্চিমা দেশগুলোর অবন্ধুসুলভ আচরণের কারণেই রাশিয়া এটি করতে বাধ্য হয়েছে।

জ্বালানির জন্য পুতিনের দরজায় ইউরোপ : যুদ্ধের ‘অস্ত্র’ এবার জ্বালানি। ইউক্রেনের পক্ষ নেয়া পোল্যান্ড এবং বুলগেরিয়াতে বুধবার গ্যাস সরবরাহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাশিয়া। মস্কোর একটি সূত্র জানাচ্ছে, পুতিন সরকারের এই সিদ্ধান্তের পর ইউরোপের অন্তত চারটি জ্বালানি সংস্থা সরবরাহ নিশ্চিত করতে রাশিয়ার সঙ্গে গোপনে বোঝাপড়া করেছে। পুতিনের চাহিদা মেনে রুবেলে দিয়েছে অগ্রিমও! জ্বালানির দাম মেটানোর জন্য ইউরোপের অন্তত ১০টি কোম্পানি রুশ জ্বালানি সংস্থা গ্যাজপ্রোমের ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট খুলেছে বলেও ওই সূত্রে জানানো হয়েছে। রুবেলের মাধ্যমে জ্বালানির দাম মেটানোর জন্যই এই পদক্ষেপ। এর ফলে মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট চারটি দেশে রুশ জ্বালানি সরবরাহ অক্ষুন্ন থাকবে। প্রসঙ্গত, বুধবার গ্যাজপ্রোমের তরফে জানানো হয়েছিল, পোল্যান্ড ও বুলগেরিয়া জ্বালানির মূল্য রুবেলে দিতে পারেনি বলে তাদের ওই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

যদিও সেই যুক্তি মানতে রাজি হয়নি ইউরোপের দেশগুলি। কারণ যুদ্ধের গোড়াতেই রাশিয়া হুমকি দিয়েছিল, ইউক্রেনের পাশে যারা দাঁড়াবে, তাদের পরিণাম ভুগতে হবে। বুধবার পোল্যান্ড ও বুলগেরিয়াকে জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার কথা ঘোষণা করে পুতিন সরকার। বুলগেরিয়ার দাবি, নিরবচ্ছিন্ন জ্বালানি সরবরাহের জন্য রাশিয়া তাদের সঙ্গে চুক্তি করেছিল। কিন্তু তা অমান্য করা হয়েছে। ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডার লিয়েন বুধবার জানিয়েছিলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-এর সদস্যরাষ্ট্র পোল্যান্ড ও বুলগেরিয়ার বিরুদ্ধে মস্কোর ওই পদক্ষেপের জবাব ঐক্যবদ্ধ ভাবে দেওয়া হবে। এর পরেই প্রকাশ হল রাশিয়ার সঙ্গে ইউরোপের একাধিক সংস্থার গোপন বোঝাপড়ার কথা।

পূর্ব ইউক্রেনের গ্রামগুলো নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে রুশ সেনা : রাশিয়ান বাহিনী ডনবাসকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করতে তাদের আক্রমণে পূর্ব ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি গ্রাম দখল করেছে বলে কিয়েভ জানিয়েছে। এর আগে মস্কো সীমান্তের পাশে বিস্ফোরণের খবর দিয়েছে এবং যুদ্ধ প্রতিবেশী মোল্দোভায় ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বুধবার বলেছে যে, রুশ বাহিনী কিয়েভের সেনাবাহিনীকে উত্তর-পূর্ব খারকিভ অঞ্চলের ভেলিকা কোমিশুভাখা এবং জাভোদি থেকে ঠেলে দিয়েছে এবং দোনেৎস্কের জারিচনে এবং নোভোতোশকিভস্কর নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। ক্রেমলিন এই মাসে বলেছে যে, তারা ২০১৪ সাল থেকে রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ডনবাসের দোনেৎস্ক এবং লুহানস্কের স্ব-ঘোষিত প্রজাতন্ত্রগুলো দখলের দিকে মনোনিবেশ করার জন্য কিয়েভের চারপাশ থেকে তার বাহিনীকে সরিয়ে নিচ্ছে।

ইউক্রেনের অস্ত্রের ডিপো উড়িয়ে দিল রুশ কালিব্র : রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে যে, তাদের কালিব্র ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ইউক্রেনের দক্ষিণ-মধ্য জাপোরিঝিয়া অঞ্চলে একটি অস্ত্রের ডিপোতে আঘাত করেছে। সেখানে ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় দেশগুলোর ইউক্রেনীয় সেনাদের সরবরাহ করা বিদেশী অস্ত্র এবং গোলাবারুদ’ সংরক্ষণ করা ছিল। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাশিয়ার বিমান বাহিনী রাতারাতি ইউক্রেনের ৫৯টি সামরিক লক্ষ্যবস্তু ধ্বংস করেছে। মারিউপোলের একজন কর্মকর্তা পেট্রো অ্যান্ড্রুশচেঙ্কো বলেছেন, রাশিয়ান বাহিনী সেখানে আজভস্টাল স্টিল প্ল্যান্টে ২৪ ঘণ্টা ধরে ৩৫টি বিমান হামলা করেছে। সেখানে প্রায় ২ হাজার ইউক্রেনীয় যোদ্ধা এবং ১ হাজার বেসামরিক লোক এখনও আটকে আছে।

রাশিয়া এবং পশ্চিমের মধ্যে সম্পর্কের পতন সত্তে¡ও মস্কো এবং ওয়াশিংটন বুধবার একটি বন্দী অদলবদল করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একজন রাশিয়ান পাইলট, কনস্টান্টিন ইয়ারোশেঙ্কোকে মুক্তি দিয়েছে, যিনি মাদক পাচারের অভিযোগে কারাগারে বন্দী ছিলেন, অন্যদিকে রাশিয়া সাবেক মার্কিন মেরিন ট্রেভর রিডকে মুক্তি দিয়েছে, যিনি পুলিশের সাথে লড়াইয়ের অভিযোগে অভিযুক্ত ছিলেন। সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি, রয়টার্স।



 

Show all comments
  • মুহাম্মদ আবুল কাশেম ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৩ এএম says : 0
    রাশিয়ার ও ইউক্রেন যুদ্ধে কেও হস্তক্ষেপ করলে তাকে দ্রুত ও কড়া জবাব দেওয়া হবে।সীমালঙ্ঘনকারীদের ছাড় দেওয়া হবেনা।যুদ্ধ যদি ইউক্রেনের হাতে থাকত তাহলে অচিরেই আমরা যুদ্ধ শেষ করে দিতাম।কিন্তুু ন্যাটো ও আমেরিকা ইউক্রেনের কাঁধে বন্দুক রেখে, রাশিয়া ও ইউক্রেন কে ধ্বংস করতে চাইছে। শত্রুদের এই সপ্ন পূরণ হবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Khandakar Masum ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৩ এএম says : 0
    দেশ চালাবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। দেশ তো জোকার চালাবে কি ভাবে। আবেগ দিয়ে দেশ এবং সমাজ চালানো যায়না। সুন্দর দেশটা কে একেবারে ধংস করে দিয়েছে জোকার টা।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Raja ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৪ এএম says : 0
    যদি তৃতীয় বিশ্ব যুদ্ধ শুরু হয়ে যায় তার জন্য দায়ভার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট নিতে হবে পশ্চিমা দেশগুলো যে ভাবে উস্কানি দিচ্ছে, ঠিক তেমনি মেনে নিচ্ছে ইউক্রেন!
    Total Reply(0) Reply
  • Sohan Uddin ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৪ এএম says : 0
    ইউক্রেনের আদলে পশ্চিমা সকল রাষ্ট্র রাশিয়ার বিরুদ্ধে ছায়া যুদ্ধ করে যাচ্ছে রাশিয়ার এখন সর্বশেষ পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার ছাড়া তার আর কোন উপায় নাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Lokman ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৪ এএম says : 0
    পুরো ইউরোপ এবং আমেরিকার সাথেই রাশিয়া একাই যুদ্ধ করতেছে । নিচ্চিত বলা যায় রাশিয়া ইজ কিং অফ দ‍্যা অয়ার্ল্ড
    Total Reply(0) Reply
  • Shafiq Islam ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ৫:২৪ এএম says : 0
    All European states should boycott America. Negotiations with Russia for a ceasefire and a peace deal.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুতিন


আরও
আরও পড়ুন