Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

হরমোন ছাড়াই পাকে বলে দাম বেশি পাওয়া যায় টমেটোয় স্বাবলম্বী গোদাগাড়ীর শত শত চাষি

প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মো. হায়দার আলী গোদাগাড়ী (রাজশাহী) থেকে

টমেটো উৎপাদনের জন্য লালস্বর্ণের উপজেলা খ্যাত রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো শত শত টমেটো চাষি স্বাবলম্বী হচ্ছেন। জমি থেকে নতুন টমেটো উঠতে শুরু করায় কৃষকের চোখে-মুখে হাসির ঝিলিক। এবার ব্যতিক্রমধর্মী পদ্ধতিতে খঁচি দিয়ে (মাচান করে) টমেটো চাষ করায় কৃষকেরা বেশি লাভবান হচ্ছেন বলে কৃষি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। চলতি মৌসুমে গোদাগাড়ীর মাটিকাটা, চর আষাড়িয়াদহ, গোগ্রাম, মোহনপুর, দেওপাড়া ও রিশিকুল ইউনিয়নে হাইব্রিড জাতের শীতকালীন টমেটোর চাষাবাদ হয়েছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গোদাগাড়ী উপজেলার আয়াতন ১৮৪ দশমিক ৮৭ বর্গমাইল। আবাদি জমির পরিমাণ ৩৫ লাখ ৭শ’ হেক্টর, ব্ল­­কের সংখ্যা ২৭টি, মৌজার সংখ্যা ৩৯৪টি, লোকসংখ্যা ২ লাখ ৯৭ হাজার (প্রায়)। গত বছর গোদাগাড়ীতে টমেটো আবাদ হয়েছিল ২ হাজার ৫১০ হেক্টর জমিতে। এবছর ২ হাজার ৪২০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ করা হয়েছে, এদের মধ্যে সালামত, বঙ্গবীর, ভিএলÑ৬৪২, ইউএসÑনসীব, সুফল, বিজলী, রকি, লাভলী, বিপল, মন্টু, মন্টু সুপার জাতটি উল্লেখযোগ্য। টমেটোর জমিতে গাছ, ফুল, ফল ভালো থাকায় চাষিরা বাম্পার ফলনের আশা করছেন। নতুন টমেটো প্রতিমণ বিক্রি হচ্ছে ১৪শ’ থেকে ১৫শ’ টাকায়। ঢাকা, নাটোর, রাজশাহী, বগুড়া, সিলেট, চিটাগাং প্রভৃতি এলাকার টমেটো ব্যবসায়ীরা গোদাগাড়ী উপজেলা এসে টমেটো ক্রয় করে বস্তা, কার্টুন, ঝুরিতে সাজিয়ে শত শত ট্রাকে বোঝাই করে দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবছর মৌসুমে কৃষকেরা টমেটোর দাম ভালোই পেয়ে থাকেন। গোদাগাড়ী উপজেলা টমেটো চাষি শামিম রেজা বলেন, ৭ বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছি প্রথম পালিতে ৩০ মণ টমেটো উঠেছে, প্রতি মণ টমেটো বিক্রি করেছি ১৫শ টাকা দরে। ৭ দিন পর টমেটো জমি থেকে আবার উঠানো হবে ৭০ মণ থেকে ৮০ মণ টমেটো পাওয়া যাবে বলে তিনি জানান। উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের ঈশ্বরীপুর ব্লকের দায়িত্বে নিয়োজিত উপ-সহকারী কৃষি অফিসার অতনু সরকার এ প্রতিবেদককে জানান, আমার ব্লকে ৭ হেক্টর জমিতে খঁচি দিয়ে টমেটো চাষ করা হয়েছে। এভাবে চাষ করার কারণে কৃষকেরা গাছে পাঁকা টমেটো পাবে, ফলন বেশি হবে, অনেক দিন ধরে টমেটো পাওয়া যাবে। হরমোন ছাড়াই টমেটো পাকে বলে টমেটোর দাম বেশি পাওয়া যায়। ফলে এ পদ্ধতিতে টমেটো চাষে বেশি আগ্রহ হচ্ছেন। মাটিকাটা ইউনিয়নের বিদিরপুর ব্লকে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মো. আশরাফুল ইসলাম জানান, কৃষক মফিজুদ্দিন বাবু ৬ বিঘা জমিতে মাচায় টমেটো চাষ করেছেন প্রতি বিঘা জমিতে ৩৫০Ñ৩৮০ মণ টমেটো পেতে পারেন কৃষকেরা। কোনো প্রকার হরমোন ছাড়াই পাকে বলে এসব টমেটো মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এবং পুষ্টিমান ঠিক থাকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ