Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিট ট্রিপ করে দক্ষিণাঞ্চলে ভয়াবহ বিদ্যুৎ বিপর্যয়

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৯ এপ্রিল, ২০২২, ১০:৫৪ পিএম

গ্রীষ্মের নজিরবিহীন দুঃসহ গরমের মধ্যেই পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিট ট্রিপ করায় শুক্রবার রাত পৌনে ৯টা থেকে দু দফায় জাতীয় গ্রীড বিপর্যয়ে সমগ্র দক্ষিনাঞ্চল অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়। রাত ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কিছু কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ ফিরলেও সমগ্র দক্ষিণাঞ্চলে সঞ্চালন, সরবারহ ও বিতরন ব্যাবস্থা স্বাভাবিক হয়নি। ফলে তারাবী নামাজরত মুসুল্লী থেকে এ অঞ্চলের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসাধীন রোগীদের চরম দূর্ভোগে পড়তে হয়েছে। ঈদের বাজারেও চরম বিপর্যয় নেমে এসেছে। যদিও ওজোপাডিকো’র বরিশাল নিয়ন্ত্রন কক্ষে নুন্যতম সরবরহ শুরুর সাথে সাথেই শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অগ্রাধীকার ভিত্তিতে বিদ্যুৎ পৌছে দেয়া হয়েছে।
শুক্রবার রাতে ৮টা ৪৪ মিনিটের দিকে অকষ্মিকভাবেই পটুয়াখালীর পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের একটি ইউনিট বন্ধ হয়ে যায়। সাথে সাথে পায়রা-পটুয়াখালীÑবরিশাল গ্রীড ট্রান্সমিশন লাইন সহ এ অঞ্চলের বেশীরভাগ সঞ্চালন লইনগুলোও বন্ধ হয়ে যায়। ফলে সমগ্র দক্ষিণাঞ্চল অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়। বরিশাল ২৩২/১৩২ কেভী ও ১৩২/৩৩ কেভী গ্রীড উপকেন্দ্র দুটি ‘অপারেশন ব্লাক আউট’ পদ্ধতিতে বিকল্প বাবস্থায় জাতীয় গ্রীড থেকে বিদ্যুৎ সংগ্রহের পাশাপাশি পায়রা’র অপর ইউনিট থেকে মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জ গ্রীড সাব-স্টেশনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংগ্রহ করে ১৫ মিনিটের মধ্যে স্টেশন লোড চালু করতে সক্ষম হয়। ২০ মিনিটের মাথায় বরিশাল,পটুয়াখালী ও ভান্ডারিয়া ১৩২/৩৩ কেভী গ্রীড সাব-স্টেশন থেকে দক্ষিনাঞ্চলে ওজোপাডিকো এবং পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিগুলোকে চাহিদার ২০ভাগ বিদ্যুৎ সরবারহ শুরু করা হলেও অতিরিক্ত লোডের চাপে ১০ মিনিটের মাথায় বরিশাল গ্রীড সাব-স্টেশন পুনরায় ট্রিপ করে।
তবে ১৫ মিনিটের মধ্যেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনে গ্রীড থেকে সরবরহ ও বিতরন ব্যবস্থা পূণর্বশন করা হলেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে সময় লাগছে। ইতোমধ্যে বরিশালের সামিট পাওয়ার, পটুয়াখালীর ইউনাইটেড পাওয়ার ও ভেলার ২২৫ মেগাওয়াটের তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো জাতীয় গ্রীডে সংযুক্ত হতে শুরু করেছে। ফলে সঞ্চালন ও সরবারহ সহ বিতরন ব্যবস্থা খুব দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসছে বলে বরিশালে পিজিসিবি’র নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন