Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

বরিশাল কারা প্রাঙ্গন থেকে অপহƒত ৭ জনকে উদ্ধারের দাবি পুলিশের

প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বরিশাল ব্যুরো : দীর্ঘ দুবছর কারাবাসের পরে হাইকোর্ট থেকে জামিনে মুক্ত হবার পর বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের প্রধান ফটকের সামনে থেকে ডিবি পরিচয়ে অপহৃত হওয়া ৭ জনকে উদ্ধারের দাবি করেছে নলছিটি পুলিশ। নলছিটি থানা পুলিশ দাবি করছে, রোববার গভীর রাতে বরিশাল-ঝালকাঠী মহাসড়কের নলছিটির আমিরাবাদ স্কুল এলাকায় সন্দেহজনক ঘোরাফেরা করার সময় টহল পুলিশ ঐ ৭ জনকে আটক করেছে। তাদেরকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণের পরে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে গত বৃহস্পতিবার কথিত অপহরণের পর থেকে ৩দিন তারা কোথায় কিভাবে ছিল এ ব্যাপারে কেউ মুখ খুলছেন না।
নলছিটি থানার ওসি এ,কে,এম সুলতান মাহমুদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে একটি কালো মাইক্রোবাস ৭ ব্যক্তিকে বরিশাল-ঝালকাঠী মহাসড়কের আমিরাবাদ স্কুল এলাকায় নামিয়ে দিয়ে যায়। তারা সড়কে সন্দেহজনক ঘোরাফেরা করলে নলছিটি থানার টহল পুলিশ তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আটক ব্যক্তিরা কোথা থেকে কিভাবে সেখানে এসেছে এ ব্যাপারে কিছু বলতে পারছে না। সোমবার সকালে ৭ জনকে ৫৪ ধারায় ঝালকাঠি চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হয়। আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।
উদ্ধার হওয়া বাকি বিল্লাহর ভাই খায়রুল বাশার জানান, সোমবার সকালে লোক মারফত খবর পেয়ে তারা ঝালকাঠীর আদালতে যান। তার ভাই বাকিবিল্লাহ সহ নিখোঁজ অপর ৬ জনের সঙ্গে আদালতের গারদখানায় দেখা ও কথা হয়েছে। খায়রুল বাশার বলেন, গত ৩ দিন তারা কোথায় ছিল এ বিষয়ে কোন উত্তর দিতে পারছেন না তার ভাই বাকিবিল্লাহ সহ অন্যরা। তারা শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন বলে জানান খায়রুল বাশার।
উদ্ধার হওয়া ৭ জন হচ্ছে, মো. বাকি বিল্লাহ, মো. নুরুল ইসলাম, মো. সোহাগ, মো. যোবায়ের, আবুল বাশার, মো. সিরাজুল ইসলাম ও মো. মিনহাজুল। এরা সকলে ঝালকাঠীর নলছিটি উপজেলার নাচনমহল গ্রামের বাসিন্দা। তাদের বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হুজির সদস্য সন্দেহে ২০১৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় নাচনমহল ইউনিয়নের খাদেমুল ইসলাম কওমী মাদ্রাসা এলাকা থেকে ওই ৭জন সহ মোট ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা দায়ের করা হলে একটি মামলায় সাড়ে ৪ বছর কারাদ- এবং অপর দুটি মামলায় খালাস পায়।
রোববার বরিশাল প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এদের স্বজনরা অভিযোগ করেন, উচ্চাদালতের নির্দেশে ৭ জনকে গত বৃহস্পতিবার বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্ত হলেও কারাগারের প্রধান ফটকে আগে থেকে অপেক্ষামান দুটি মাইক্রোবাসে আইনÑশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে একদল লোক ৭ জনকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সবগুলো সংস্থাই এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করে আসছিল।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ