Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

পার্লামেন্টে পর্ন দেখায় মজেছিলেন মন্ত্রী ! কেঁদে ক্ষমা চাইলেন স্ত্রীর কাছে

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ মে, ২০২২, ৩:২১ পিএম

পার্লামেন্টের ভরা সভায় মহিলা সদস্যদের পাশে বসেই মন্ত্রী পর্ন ভিডিও দেখছিলেন, এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সরগরম ব্রিটিশ পার্লামেন্টের আইন সভা। বিষয়টি নিয়ে বেশ জল ঘোলা হয়েছে। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমন চিত্র দেখে নিন্দা করেছেন স্বয়ং ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। অবশেষে পার্লামেন্টের এই মন্ত্রী নিজের কাজের জন্য ক্ষমা চাইলেন স্ত্রীর কাছে, তাও আবার রীতিমতো কান্নাকাটি করে। ইনি হলেন ইংল্যান্ডের কনজারভেটিভ পার্টির মন্ত্রী নীল প্যারিস। সম্প্রতি আইন সভায় এই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে, তদন্ত শেষে যদি অপরাধ প্রমাণিত হয় তাহলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আসল ঘটনাটি হল, ব্রিটেনের পার্লামেন্টের হাউস অফ কমনসে নারী নিগ্রহ নিয়ে আলোচনা চলছিল। দ্য টাইমসে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ওই হাউসে নির্বাচিত কমিটির শুনানি চলছিল। কয়েকজন মহিলা এমপি যৌননিগ্রহ নিয়ে তাঁদের বক্তব্য রাখছিলেন, আর ঠিক সেইসময়ে পর্ন ভিডিও দেখতে ব্যস্ত ছিলেন পার্লামেন্টের অপর একজন এমপি। বরিস জনসনের দলের এমপিকে বৈঠকের মাঝে পর্নোগ্রাফি দেখতে দেখা যায়। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনার নিন্দা করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। কাজের জায়গায় বসে পর্ন ভিডিও দেখা একেবারেই মেনে নেওয়া যায় না , পাশাপাশি এই কাজ অত্যন্ত অনৈতিক।

তবে এই মন্ত্রী নিজের স্ত্রীর উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন যে তিনি দুঃখিত। তাঁর স্ত্রী একজন মূর্খকে বিয়ে করেছেন। শুক্রবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি নীল প্যারিস বলেন, তিনি সব থেকে বেশি তাঁর স্ত্রীর কাছে ক্ষমাপ্রার্থী কারণ, তাঁর স্ত্রীকে তিনি এই পরিস্থিতির মধ্যে এনে ফেলেছেন। যদিও শুক্রবার স্পষ্টভাবে মন্ত্রীর স্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন যে এই লড়াইয়ে তিনি সর্বদা তাঁর স্বামীর পাশে রয়েছেন। যদিও নীল প্যারিস নিজের পদ থেকে ইস্তফা দেবেন কিনা এই বিষয়ে এখনো কোনো সঠিক সিদ্ধান্ত জানা যায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্যে


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ