Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

রূপগঞ্জে ব্যবসায়ীকে জবাই করে শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবার

প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রূপগঞ্জ উপজেলা সংবাদদাতা
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জমিসংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে জাল দলিলের কারিগর ভূমি দস্যু ছায়েদ আলী ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নানকে জবাই করে শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শুধু তাই না, তার বিষয় নিয়ে যদি বেশী বাড়াবাড়ি করে তা হলে তার পরিবারের সবাইকে জবাই করে টুকরা টুকরা করে নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হবে বলে তিনি হুমকি দিয়ে আসছেন। বুধবার বিকেলে উপজেলার আমলাবো এলাকায় এ হুমকির ঘটনা ঘটে। ছায়েদ আলী উপজেলার ভুলতা ইউনিয়নের মর্তুজাবাদ এলাকার মৃত মোহম্মদ আলীর ছেলে।
ভূমিদস্যু ছায়েদ আলীর হয়রানির শিকার আব্দুল মান্নান জানান, ক্রয় সূত্রে মালিক হয়ে আমলাবো মৌজায় ৭৪ শতাংশ জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছেন। ওই জমিটি ভুয়া দলিল করে ভূমিদস্যু সায়েদ আলীসহ বাহিনীর সদস্যরা জবরদখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। ছায়েদ আলীর সহযোগী হিসেবে কাজ করছে শওকত আলী, ইয়াকুব আলী, মিজান, আরিফুল ইসলাম, বিমল বৈরাগী, মনির হোসেন, রেজাউল করিম হান্নান ফকির, মোবারকসহ তার বাহিনীর সদস্যরা। সোমবার বিকেলে ছায়েদ আলী বাহিনীর সদস্যরা জোরপূর্বক আঃ মান্নানের জমিতে পাঁকা দেয়াল নির্মাণ করতে যায়। এসময় বাঁধা দেয়ায় আব্দুল মান্নানকে লাঠিপেটা করে গুরুতর আহত করা হয়। এক পর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ৮/১০ জনকে আসামি করে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকেই আঃ মান্নান ও তার পরিবারকে অব্যাহত হত্যার হুমকি প্রদান করে আসছে সায়েদ আলীসহ তার বাহিনীর লোকজন। অব্যাহত হত্যার হুমকির মুখে ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে মান্নানসহ তার পরিবার।
ভূমিদস্যু ছায়েদ আলী ১৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি দখলবাজ বাহিনী রয়েছে। তার বাহিনীর কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে ভুলতা ইউনিয়নের ৫ গ্রামের মানুষ। জাল দলিল ও ভুয়া দলিল করে জোরপূর্বক মানুষের জমি জবরদখল করে একের পর এক অপকর্ম করে চালিয়ে যাচ্ছে এই ভূমিদস্যু বাহিনী। এভাবে ছায়েদ আলী এখন অনেক টাকার মালিক।
এ বাহিনীর বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগের শেষ নেই। এ ব্যাপারে ছায়েদ আলীর সাথে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার কোন বাহিনী নেই। একটি কু-চক্রমহল আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্র করছে। তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেন।
এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, ছায়েদ আলীর বিরুদ্ধে জাল দলিল ও জমি জবরদখলের বেশ কয়েকটি অভিযোগ পেয়েছি। এ বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রূপগঞ্জে ব্যবসায়ীকে জবাই করে শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবার
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ