Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আত্মহত্যায় শীর্ষে মেধাবীরা

| প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

অর্থনৈতিক দুরাবস্থার দরুন মেধাবী ছাত্রদের একটি অংশ প্রতিনিয়ত বেছে নিচ্ছে আত্মহত্যার মতো গর্হিত পথ। গত এক বছরে (২০২১) দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ১০১ জন শিক্ষার্থী পা-বাড়িয়েছে আত্মহত্যার পথে। আত্মঘাতী হয়ে ওঠা এই সকল শিক্ষার্থীর মধ্যে ৬২ জন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া, মেডিক্যালে পড়ুয়া ১২ জন, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ২৩ জন এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ জন। আত্মঘাতী হওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৬৫ জন ছেলে এবং ৩৬ জন মেয়ে। স্বাভাবিক দৃষ্টিতে বোঝা যাচ্ছে, হঠাৎ সৃষ্ট অবস্থার সাথে নিজেকে খাপ খাওয়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষার অভাব, জীবনে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটলে সেটি মেনে নিতে না পারা এবং প্রেম সংক্রান্ত বিচ্ছেদ ঘটলেও তারা নিজেদের ভেতর থেকে যেমন গুটিয়ে নেন, ঠিক তেমনি পরীক্ষার অনাকাক্সিক্ষত রেজাল্টও তার মন-মগজে প্রভাব বিস্তার করে। তবে মনে রাখতে হবে যে, জীবনে ভালো-খারাপ যে পরিস্থিতিই আসুক না কেন সেটি স্বাভাবিক জীবন প্রক্রিয়ারই অংশ। আত্মবিশ্বাস এবং নিজের ভেতরকার শক্তি না হারিয়ে অত্যাধিক ধৈর্য্যের পরিচয় দেয়ার মানসিকতা রাখতে হবে। চোখ বন্ধ করে বুকে হাত রেখে ভাবতে হবে, রাত যত গভীর হয় প্রভাত তত নিকটে আসে। তবে সমকালীন আত্মহত্যার বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের আরো ভাবতে হবে। প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে সাইকোলজিস্ট নিয়োগ দিতে হবে। সর্বোপরি আত্মহত্যা রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। তা না হলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে।

জিহাদ হোসেন রাহাত
শিক্ষার্থী, প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী কলেজ, লক্ষ্মীপুর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যায় শীর্ষে মেধাবীরা
আরও পড়ুন