Inqilab Logo

শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

বেরিয়ে আসছে অবৈধ তেলের মজুদ

দশ জেলায় চিরুনি অভিযান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

মজুদের অপরাধে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা : অভিযানে বিপুল পরিমাণে ভোজ্যতেল উদ্ধার : বোতলের সয়াবিন তেল বের করে খোলা তেল হিসেবে বিক্রি
ইনকিলাব ডেস্ক
দেশের দশ জেলায় গতকাল ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সারাজি অভিযানে বিপুল পরিমানে মজুদকৃত ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়। চট্টগ্রামে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তেল উদ্ধার ও অবৈধ তেল মজুদের দায়ে অর্থদÐ প্রদান করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এছাড়াও খুলনা, নোয়াখালী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর, ল²ীপুর, নীলফামারী, পঞ্চগড়, কিশোরগঞ্জ, ঝিনাইদহে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার। আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো খবরে:

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, কম দামে আগে কেনা বোতলজাত সয়াবিন তেল মজুদ করে রেখে খোলা হিসাবে বেশি দামে বিক্রির দায়ে একটি দোকানকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। গতকাল বিসমিল্লাহ স্টোরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. ফয়েজ উল্যাহ জানান, বিসমিল্লাহ স্টোর নামের ওই দোকানে অভিযান চালিয়ে দেড় হাজার লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। এর মধ্যে ৫০০ লিটার তেল পাওয়া গেছে বোতলজাত অবস্থায়। দোকানটিকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। বোতলের সয়াবিন তেল বের করে খোলা তেল হিসেবে বিক্রি করে বিসমিল্লাহ স্টোরে।

খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনার বড় বাজার এলাকার ৩টি গোডাউনে ৭৩ হাজার ৩২ লিটার সয়াবিন এবং ১ লাখ ৬৩ হাজার ৬০৮ লিটার পাম অয়েল অবৈধভাবে মজুদ পেয়েছে জেলা প্রশাসন ও র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। তেল মজুদ রাখার অপরাধে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে খুলনার বড় বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দেবাশীষ বসাক এ তথ্য জানান।

নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, ভোজ্যতেলের বাজার তদারকি, নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে অভিযান চালিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জেলা শাখা। এসময় বেশি মূল্যে সয়াবিন তেল বাজারে বিক্রির আশায় মজুদ করা ২০০ লিটার তেল জব্দ করা হয়েছে। ঘটনায় বসুন্ধরা নামের ওই প্রতিষ্ঠানের মালিককে ২০ হাজার টাকা অর্থদÐ এবং তেলগুলো সাধারণ ক্রেতাদের কাছে খুচরা মূল্যে বিক্রি করা হয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান,
চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বটতলা এলাকায় মেসার্স কাজল স্টোরের গোডাউন থেকে সাড়ে ৪ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। গতকাল দুপুরে অভিযান চালিয়ে তেলগুলো উদ্ধার করেন ভোক্তা অধিকারের সহকারী পরিচালক উসমান গণি।
সহকারী কর্মকর্তা উসমান গণি জানান, মেসার্স কাজল স্টোরের গোডাউনে গোপন খবরের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করি। গোডাউন থেকে পাঁচ ও এক লিটারের বোতলের সাড়ে ৪ হাজার লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। স্বত্বাধিকারী কাজলকে তেল মজুদ রাখার দায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান,
নাটোরে জব্দকৃত ২৩৫৯ লিটার সয়াবিন তেল স্থানীয়দের মাঝে বিক্রি করলো প্রশাসন। গত বুধবার দিবাগত রাতে ১০টার দিকে নাটরের স্টেশন বাজারে চলে এই কার্যক্রম। প্রশাসনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে স্থানীয় ক্রেতারা। সরকার ঘোষিত মূল্যে সয়াবিন তেল বিক্রির নিয়ম থাকলেও অধিক মুনাফার লোভে বাড়তি মূল্যে বিক্রয় ও মজুদ করায় নাটোর শহরের ৪টি দোকান থেকে ২ হাজার ৩৫৯ লিটার তেল জব্দ করেছে র‌্যাব প্রশাসন। উক্ত অভিযানে অবৈধভাবে তেল মজুদের দায়ে অভিযুক্তদের ভোক্তা অধিকার দোকান মালিকদের ৮৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
ল²ীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, ল²ীপুরে সয়াবিন তেল মজুত করার অপরাধে গতকাল দুপুরে ল²ীপুর বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে নুর আলম ষ্টোর, রূপা ষ্টোর ও রাজ্জাক ষ্টোরকে ২০ হাজার টাকা হারে ৬০ হাজার টাকা এবং মাছ বাজার এলাকার খান ষ্টোরকে ১০ হাজার টাকাসহ ৪ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৭০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অমৃত কুমার বিশ্বাস। গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই’র তথ্যের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের যৌথ উদ্যোগে ল²ীপুর বাজারে এ অভিযান চালানো হয়।

নীলফামারী জেলা সংবাদদাতা জানান, নীলফামারীর ডিমলায় একটি গোডাউনে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ভোজ্য তেল মজুদ করার অপরাধে জরিমানা আদায় করেছে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদফতর।
গত বুধবার জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর নীলফামারী জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শামসুল আলমের নেতৃত্বে উপজেলার বাবুরহাট বাজারের মেডিক্যাল মোড় এলাকায় নুপুর স্টোরের স্বত্বাধিকারী রাজা নামে এক ব্যবসায়ীর গোডাউনে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ৬ হাজার ৭০০ লিটার খোলা সয়াবিন তেল অবৈধভাবে মজুদ অবস্থায় পাওয়া যায়। এ অপরাধে প্রতিষ্ঠানটিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।
বোদা (পঞ্চগড়) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় ৩২০ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধারের পর প্রতি লিটার ১৬০ টাকা দরে উপস্থিত ক্রেতাদের মাঝে বিক্রি করে দিয়েছে পঞ্চগড় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। গতকাল দুপুরে জেলার বোদা উপজেলার নগরকুমারী বাজারের মেসার্স মাহাবুব স্টোরের স্বত্বাধিকারী মাহাবুব আলম রাবীর বাসা থেকে এসব তেল উদ্ধার করা হয়। পঞ্চগড় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক পরেশ চন্দ্র বর্মনের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান,
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় পৌরসভার বিহারীমোড়ে আরএস অয়েল মিলের গোডাউনে অভিযান চালানো হয়। গতকাল দুপুরে এই অভিযানের সময় ৪২ হাজার ২৪ লিটার মজুদ করা ভোজতেল উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ২০ হাজার ৬০৪ লিটার তেলের বৈধ কাগজপত্র নেই। এ অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর অভিযুক্ত ব্যবসায়ীকে ১৫ হাজার টাকা অর্থদÐ করা হয়।

কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, নীলফামারী কিশোরগঞ্জে অবৈধভাবে সয়াবিন তেল মজুদ করার অপরাধে এক ব্যবসায়ীকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। গতকাল দুপুরে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক সামসুল আলমের নেতৃত্বে কিশোরগঞ্জ বাজারে হারুন স্টোর নামে এক ব্যবসায়ীর গোডাউনে অভিযান চালানো হয়। এসময় ৪ হাজার ২৪লিটার সয়াবিন তেল অবৈধভাবে মজুদ রাখার দায়ে মেসার্স হারুন স্টোরের মালিক বুলবুল আহমেদের ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভোজ্যতেল

১৫ মে, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন