Inqilab Logo

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে ফোন দিতে বাধ্য হলেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ মে, ২০২২, ২:৪০ পিএম

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগুকে ফোন দিয়েছিলেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন। শুক্রবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছে, তাদের মধ্যে আলোচনা করা বিষয়গুলোর মধ্যে ইউক্রেনের পরিস্থিতি ছিল।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘আমেরিকান পক্ষের উদ্যোগে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিনের সাথে টেলিফোনে আলোচনা করেছেন। উভয় পক্ষ ইউক্রেনের পরিস্থিতি সহ আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার বর্তমান সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেছে।’

পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি এর আগে বলেছিলেন যে, রাশিয়ান প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এবং রাশিয়ান চিফ অফ দ্য জেনারেল স্টাফ ভ্যালেরি গেরাসিমভ পেন্টাগন প্রধান লয়েড অস্টিন এবং মার্কিন জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফ চেয়ারম্যান মার্ক মিলির সাথে ফোনে কথা বলতে অস্বীকার করছেন।

শোইগু এবং অস্টিনের মধ্যে আগের টেলিফোন কলটি ১৮ ফেব্রুয়ারি হয়েছিল। এর পরে দুই পক্ষের মধ্যে আর কোন আলোচনা হয়নি। তবে রাশিয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ইউরোপের মধ্যে মত-পার্থক্য দেখা দেয়ায় সে প্রচেষ্টা খুব একটা ফলপ্রসূ হয়নি। উল্টো, ইউক্রেনে নিজেদের উদ্দেশ্য হাসিল করে নিয়েছে রাশিয়া।

এমন পরিস্থিতিতে রাশিয়ার সাথে আলোচনায় আগ্রহী হয় যুক্তরাষ্ট্র। যদিও এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছিলেন, তাদের লক্ষ্য রাশিয়াকে আর কখনো মাথা তুলে দাঁড়াতে না দেয়া। তবে সমালোচনার মুখে সেই কথা তুলে নিতে বাধ্য হন বাইডেন। বর্তমানে ইউরোপের মধ্যে বিভেদ ও মধ্যপ্রচ্যে নুতন করে সঙ্কট দেখা দেয়ায় রাশিয়ার থেকে বেশি চাপে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

ইউক্রেনে রুশ অবরোধের কারণে সঙ্কটে পড়েছে মার্কিন অর্থনীতিও। পাশাপাশি, জ্বালানি সঙ্কটের কারণে ইউরোপেও অস্থিতিশীলতা দেখা দিয়েছে। যার ফলে জার্মানি, ফ্রান্স ও ইতালির মতো ইউরোপীয় পরাশক্তিগুলো রাশিয়াকে চাপ দেয়ার বদলে আলোচনার মাধ্যমে ইউক্রেন সঙ্কট সমাধানে জোর দিচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে নমনীয় হতে হলো যুক্তরাষ্ট্রকেও। সূত্র: তাস।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ