Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

ব্রিটেনকে শয়তান-২ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহারের হুমকি রাশিয়ার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০২২, ৫:৫০ পিএম | আপডেট : ৭:২২ পিএম, ১৫ মে, ২০২২

রাশিয়া তার প্রাণঘাতী আরএস-২৮ সারমাত হাইপারসনিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করার নতুন হুমকি দিয়েছে ব্রিটেনকে। পশ্চিমে এটি ‘শয়তান-২’ নামে পরিচিত, যা মাত্র ‘২০০ সেকেন্ডে’ ব্রিটেনকে আঘাত করতে সক্ষম।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা কমিটির ডেপুটি চেয়ারম্যান আলেক্সি ঝুরাভলিভের এই সতর্কতা আসে যখন ফিনল্যান্ড ন্যাটোতে যোগ দিতে প্রস্তুত এবং সুইডেন এটি অনুসরণ করতে প্রস্তুত। ‘যদি ফিনল্যান্ড এই ব্লকে যোগ দিতে চায়, তাহলে আমাদের লক্ষ্য একেবারেই বৈধ – এই রাষ্ট্রের অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা হবে যৌক্তিক,’ ঝুরাভলিভ রাষ্ট্রীয় টিভি রাশিয়া ১ এর সাথে একটি সাক্ষাতকারে বলেছেন।

‘যদি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আমাদের রাষ্ট্রকে হুমকি দেয় তবে এটি ভাল: এখানে আপনার জন্য সারমাত রয়েছে এবং আপনি যদি মনে করেন যে রাশিয়ার অস্তিত্ব থাকা উচিত নয় তবে আপনার কাছ থেকে পারমাণবিক ছাই থাকবে। এবং ফিনল্যান্ড বলে যে এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে এক। আচ্ছা, লাইনে দাঁড়ান।’

গত মাসে রাশিয়া তার নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে, ঘোষণা করেছে যে ওয়ারহেড যা ইউরোপ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে লক্ষ্য করে শরতের মধ্যে মোতায়েন করা হবে। সারমাত ১০ বা ততোধিক পারমাণবিক ওয়ারহেড এবং ডিকো বহন করতে সক্ষম এবং হাজার হাজার মাইল দূরে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

রাশিয়া এখন ফিনল্যান্ডের সাথে তার সীমান্তে পারমাণবিক অস্ত্র পুনঃস্থাপন করবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন: ‘কিসের জন্য? আমাদের দরকার নেই।’ তিনি বলেন, ‘আমরা সাইবেরিয়া থেকে একটি সারমাত দিয়ে আঘাত করতে পারি, এমনকি যুক্তরাজ্যেও পৌঁছাতে পারি। এবং যদি আমরা কালিনিনগ্রাদ থেকে আঘাত করি... হাইপারসনিকের পৌঁছানোর সময় ২০০ সেকেন্ড - তাই এগিয়ে যান, বন্ধুরা। ‘ফিনিশ সীমান্তে আমাদের কৌশলগত অস্ত্র থাকবে না, তবে কিনজাল-শ্রেণির থাকবে, যা ১০ সেকেন্ড বা এমনকি ১০ সেকেন্ডের মধ্যে ফিনল্যান্ডে পৌঁছাবে।"

ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের অভিপ্রায়ে রাশিয়া তার অসন্তোষ প্রকাশ করেছে এবং বলেছে যে তারা সামরিক-প্রযুক্তিগত এবং অন্যান্য প্রকৃতির উভয় ধরনের ‘প্রতিশোধমূলক পদক্ষেপ’ নেবে, যাতে তার জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি ক্রমশ বাড়ছে। সূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ।

 



 

Show all comments
  • মেহেদী হাসান ১৬ মে, ২০২২, ৩:৩৮ পিএম says : 0
    ধ্বংস হোক ন্যাটো, ধ্বংস হোক আমেরিকা। রাশিয়ার জয় হোক।
    Total Reply(0) Reply
  • রেজাউল করিম ১৭ মে, ২০২২, ১১:৩৯ এএম says : 0
    আমেরিকা গণতন্ত্রের কথা বলে, অথচ তারাই পৃথিবীতে তাদের প্রতিপক্ষের অস্তিত্ব সহ্য করতে চায় না।
    Total Reply(0) Reply
  • খন্দকার সাবের ২১ মে, ২০২২, ১:৫৫ এএম says : 0
    আমেরিকার অস্তিত্ব যতদিন থাকবে, পৃথিবীতে ততদিন অসস্ততী থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • খন্দকার সাবের ২১ মে, ২০২২, ১:৫৫ এএম says : 0
    আমেরিকার অস্তিত্ব যতদিন থাকবে, পৃথিবীতে ততদিন অসস্ততী থাকবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ