Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

মায়ের সামনেই কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০২২, ১২:০৩ এএম

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় ঝালকাঠির রাজাপুরে কলেজছাত্রীকে মায়ের সামনেই প্রকাশ্য ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক বখাটের বিরুদ্ধে। গত শনিবার বিকেলে উপজেলার জগাইরহাট বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রাতে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী রাজাপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন করেন।
ছাত্রীর পরিবার জানায়, ঝালকাঠি শহরের একটি কলেজের বিএ প্রথমবর্ষে পড়ে ওই ছাত্রী (১৯)। তাকে রাজাপুরের জগাইরহাট এলাকার মো. হেমায়েত হাওলাদারের ছেলে সারফি হাওলাদার (১৮) পথে-ঘাটে ইভটিজিং করতো। ছেলেটি ওই তরুণীর চেয়ে এক বছরের ছোট। মেয়েটি এ বিষয়টিও কয়েকবার ছেলেটিকে বলে। এতেও কোন কাজ হয় না। পরে ছেলেটির বাবার কাছে অভিযোগ করে ওই তরুণীর পরিবার। এতে ক্ষিপ্ত হয় সে। গত শনিবার বিকেলে ওই ছাত্রী তাঁর মায়ের সাথে খালার বাড়িতে যাওয়ার পথে ইভটিজিং করে। মেয়েটিকে অশালীন ভাষায় গালাগালও করে। ছাত্রীর মা এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় বখাটে সারফি ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে লাথি মেরে রাস্তায় ফেলে দেয়। সে প্রকাশ্যে মায়ের সামনেই মেয়েকে ধর্ষণচেষ্টা চালায়। মা ও মেয়েকে মারধরও করে সে। ভুক্তভুগির চিৎকারে স্বজনরা এসে ওই মেয়েটিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। এ ঘটনায় মেয়েটি রাতেই থানায় একটি অভিযোগ করেন। পুলিশ উভয় পক্ষকে গতকাল রাতে থানায় উপস্থিত থাকার জন্য বলেছে।
মেয়েটির মা বলেন, সারফির বখাটেপনা সম্পর্কে তাঁর বাবাকে বলা হয়েছিল। এরপরেও সে ভালো হয়নি। আমাকে মেরে আমার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। আমাদের মারধর করেছে। আমরা এ ঘটনার বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ করেছি। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষতে থানায় আসতে বলেছে। অভিযুক্ত সারফির বাবা মো. হেমায়েত হাওলাদার জানান, মেয়েটি আগে তাঁর ছেলে সারফিকে জুতা দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছে। পুলিশ উভয় পক্ষকে থানায় ডেকেছে। আশাকরি একটি সমাধান হয়ে যাবে।
রাজাপুর থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় বলেন, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন দুইপক্ষকে থানায় উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। তাদের বক্তব্য শুনে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন