Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

ছেংগারচর পৌর বাজারে সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তায় জমে পানি

ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে : চরম জনদুর্ভোগ

মাহবুব আলম লাভলু, মতলব (চাঁদপুর) থেকে | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০২২, ১২:০১ এএম

সামন্য বৃষ্টিতেই চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌর সভার ছেংগারচর বাজারের স্কুল রোডে রাস্তাসহ কয়েকটি অলি-গলি পানিতে তলিয়ে যায়। ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় জনদুর্ভোগ চরমে উঠেছে। বর্ষার শুরুতেই বৃষ্টির পানিতে পানিবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে বাজারের এ রাস্তা ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে পড়বে। বাজার এলাকার রাস্তা পথে লোকজনের চলাচল জনগুরুত্বপূর্ণ এই বাজারটিতে মানুষের দুর্ভোগ যেন বিগত দিনে দেখার কেউ ছিল না।
উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ছেংগারচর বাজার হতে প্রতিবছর লাখ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় করলেও এ বাজারে নেই পানি নিস্কাশনের জন্য ড্রেনেজ (বেশি ভাগ) ব্যবস্থা। বাজারের চার পাশের ছোট ছোট খাল ও গর্ত ভরাট করে বাসা-বাড়িসহ নানা ধরণের স্থাপনা গড়ে ওঠার কারণে বাজার এলাকার পানি নিষ্কাশন পথ প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। বৃষ্টি হলেই বৃষ্টির পানিতে বাজারের অলি-গলিসহ বাজার এলাকায় পানিবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে ছেংগারচর বাজারের স্কুল রোড এলাকায় প্রায় হাটু পানি জমে জলাবদ্ধতার কারণে কোন কোন দোকান ঘরের ভেতর পানি প্রবেশ করে। ফলে দোকান পাঠ বন্ধ রাখতে হয়।
ছেংগারচর বাজারের স্কুল রোড রাস্তাটি বাজারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ রাস্তা দিয়ে স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, বিভিন্ন অফিসের লোকজন, বাজারের ক্রেতা-বিক্রেতারা চলাচল করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়ছে।
ছেংগারচর বাজারটি ছেংগারচর পৌর সভার আওতাধীন। কয়েক বছর ধরে বৃষ্টির পানিতে বাজারের অলি-গলিতে পানিবদ্ধতার সৃষ্টি হলেও পৌর সভার কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না বলে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ।
ছেংগারচর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন জানান, বাজার ইজারা দিয়ে প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা নেয়া হচ্ছে। অথচ বাজারে ড্রেনেজ ব্যবস্থা এবং উন্নয়নমূলক কাজ হয়নি, পানি নিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা না হলে বৃষ্টির পানি জমে বাজার এলাকায় দীর্ঘস্থায়ী জলাবদ্ধতা দেখা দিবে।
ছেংগারচর পৌর সভার নবনিযুক্ত প্রশাসক উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) হেদায়েত উল্যাহ জানান, আমি নতুন দায়িত্বভার গ্রহন করেছি। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন