Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

কাবুলে ফের দূতাবাস খোলার ভাবনা ভারতের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২২, ৫:৫১ পিএম

তালেবান সরকারকে কূটনৈতিক ভাবে এখনও স্বীকৃতি দেয়নি ভারত। তার জেরেই কাবুলে দূতাবাস বন্ধ করেছিল তারা। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-সহ ১৬টি দেশ সেখানে বন্ধ করে দেয়া দূতাবাস আবার খুলেছে। রাশিয়া, চীন, পাকিস্তান, ইরানের মতো দেশগুলি তো কখনওই বন্ধ করেনি দূতাবাস। ফলে গত ১০ মাস ধরে আফগানিস্তানের মানচিত্রে কার্যত মুছে গিয়েছে একমাত্র ভারত।

সূত্রের খবর, এই উভয় সঙ্কটের মধ্যে পড়ে সাউথ ব্লক কাবুলে দূতাবাস খোলার চিন্তাভাবনা শুরু করেছে। তবে আগের মতো শীর্ষ কূটনৈতিক কর্তারা যাবেন না সেখানে। পূর্ণাঙ্গ সক্রিয়তাও থাকবে না। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক শীর্ষ কর্তার বক্তব্য, “এ ব্যাপারে কিছু কথাবার্তা এগিয়েছে। আফগানিস্তানের মানুষের পাশে দাঁড়ানো এবং সহায়তা পৌঁছনোর জন্য লিয়াজোঁর কাজে ব্যবহার করা হতে পারে দূতাবাস।”

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে আয়োজন করা হয়েছিল এসসিও গোষ্ঠীভূক্ত রাষ্ট্রগুলির আঞ্চলিক সন্ত্রাসবিরোধী কমিটির বৈঠক। আলোচনায় অগ্রাধিকার পেয়েছে আফগানিস্তান। কিন্তু দেখা গিয়েছে, ওই বৈঠকে ভারতই একমাত্র দেশ যাদের কোনও উপস্থিতি নেই কাবুলে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই ভারত থেকে নিরাপত্তা বিভাগীয় কর্তাদের একটি দল আফগানিস্তান ঘুরে এসেছে, সেখানকার পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখার জন্য। তাদের দেয়া রিপোর্টের ভিত্তিতে আলোচনা হচ্ছে কাবুলে ভারতীয় দুতাবাসের তালা আংশিক ভাবে হলেও খোলার। ভারতের সঙ্গে আফগানিস্তানবাসীদের ন্যূনতম যোগাযোগ রক্ষা, প্রয়োজনে তাদের কাছে ভারতীয় সাহায্য পৌঁছে দেয়াটাই যার মুখ্য উদ্দেশ্য।

তালেবান ক্ষমতায় আসার দু’দিন পর অর্থাৎ গত বছরের ২৭ আগস্ট, আফগানিস্তানে দূতাবাস বন্ধ করে ভারত। তার পর থেকেই সরকারের অভ্যন্তরে বিতর্ক চলেছে, সিদ্ধান্তটা ঠিক হল কি না। সূত্র: টাইমস নাউ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ