Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

চীন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র চলন্ত গাড়িকে নির্ভুলভাবে আঘাতে সক্ষম

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২২, ১২:০৩ এএম

জানা গেছে, চীন মাইক্রো-সেকেন্ড নির্ভুলতার সাথে চলন্ত যানকে আঘাত করতে সক্ষম হাইপারসনিক মিসাইল তৈরি করছে। প্রকল্পের সাথে জড়িত বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এটি একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি’।
সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের মতে, শীর্ষ গতিতে চলমান লক্ষ্য কীভাবে সনাক্ত করা যায় তার প্রধান সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্যে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জিয়ানের পিএলএ রকেট ফোর্স ইউনিভার্সিটি অফ ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ইয়াং জিয়াওগাং-এর নেতৃত্বে গবেষণা দল বলেছে, হাইপারসনিক প্রযুক্তির আপাতদৃষ্টিতে জটিল চ্যালেঞ্জগুলোর সমাধান নিয়ে আসার জন্য তাদের ২০২৫ সালের সময়সীমা দেয়া হয়েছে।
চাইনিজ জার্নাল অফ ইনফ্রারেড অ্যান্ড লেজার ইঞ্জিনিয়ারিং-এ প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে বিজ্ঞানীদের দল দেখিয়েছে যে, একটি হাইপারসনিক মিসাইল এক সেকেন্ডের ভগ্নাংশে দীর্ঘ দূরত্ব অতিক্রম করতে পারে এবং পজিশনিং এবং গাইডেন্স সিস্টেমে একটি ছোট ত্রুটির কারণে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
এটি বলে যে, দূরত্বে একটি ছোট চলমান লক্ষ্যের ইনফ্রারেড স্বাক্ষর ‘আকৃতি, টেক্সচার এবং কাঠামোর মতো বিস্তারিত তথ্য ছাড়াই শুধুমাত্র কয়েকটি পিক্সেল গঠন করে’, সনাক্তকরণ এবং ট্র্যাকিং ‘অত্যন্ত কঠিন’ করে তোলে।
বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এ নতুন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে চীনা সামরিক বাহিনী ‘আঞ্চলিক যুদ্ধে হাইপারসনিক অস্ত্র ব্যবহারের সুযোগ উল্লেখযোগ্যভাবে প্রসারিত করতে পারে’।
মি. ইয়াং-এর মতে, দলটির সনাক্তকরণ এবং ট্র্যাকিং-এর একটি নতুন পদ্ধতি রয়েছে, কারণ এটি একটি দ্রুত গতিশীল লক্ষ্যে ফোকাস করে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে চীন গোবি মরুভূমিতে একটি ফায়ারিং রেঞ্জে রেলের ওপর নির্মিত একটি মডেল বিমানবাহী বাহকসহ মোবাইল টার্গেটে তার ক্ষমতাকে কেন্দ্রীভূত করেছে।
সংবাদপত্রের মতে, নতুন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রটি একটি নতুন চিত্রকে মঞ্জুর করে না এবং পরিবর্তে প্রতিটি পিক্সেলকে সূক্ষ্ম সুর করতে মোশন সেন্সর দ্বারা সংগৃহীত ডেটা ব্যবহার করবে। এসসিএমপি বলেছে, চীনা সামরিক বাহিনী বিশ্বাস করে যে, হাইপারসনিক অস্ত্র যুদ্ধের প্রকৃতি পরিবর্তন করবে এবং প্রযুক্তিতে সুবিধা পেতে প্রচুর বিনিয়োগ করছে। হাইপারসনিক পিএলএ প্রোগ্রামে কাজ করেন প্রায় ৩ হাজার বিজ্ঞানী। সূত্র : দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।



 

Show all comments
  • Ezaz Khan ১৯ মে, ২০২২, ১০:১১ এএম says : 0
    Not in the future Now USA very much concarn
    Total Reply(0) Reply
  • Nijam Uddin Nijam Uddin ১৯ মে, ২০২২, ১০:১১ এএম says : 0
    খু্ব ভালো এটা পাকিস্তানের দরকার
    Total Reply(0) Reply
  • Miraj Evan ১৯ মে, ২০২২, ১০:১১ এএম says : 0
    পাকিস্তান ও ইরানের দরকার
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন