Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

চুলের যত্নে মেহেদি

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২২, ১১:৫৮ পিএম | আপডেট : ১২:০৩ এএম, ১৯ মে, ২০২২

চুল ভালো রাখতে যেসব উপাদান ব্যবহার করা হয়, তার মধ্যে অন্যতম হলো মেহেদি। মেহেদির প্যাক তৈরি করে ব্যবহার করলে তা চুলের নানাভাবে উপকার করে। শুধু মেহেদিই নয়, এর সঙ্গে অন্যান্য উপাদান মিশিয়ে ব্যবহার করা হয়। সুন্দর ও সুস্থ চুল পেতে চাইলে সেসব প্যাক ব্যবহার করতে পারেন আপনিও। মাসে দুই-তিনবার এভাবে ব্যবহার করলে সুফল পাবেন দ্রুত। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

মেহেদি ও গ্রিন টি

মেহেদির সঙ্গে গ্রিন টি মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। সবচেয়ে ভালো ফল পাবেন এই প্যাক সারা রাত রেখে দিলে। পরদিন সকালে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এরপর পুরো মাথার ত্বকে ও চুলে প্যাকটি লাগিয়ে নিন। এভাবে আধা ঘণ্টার মতো রেখে ধুয়ে ফেলুন। চুলের রং আরও গাঢ় করতে চাইলে গ্রিন টি এর বদলে কফি ব্যবহার করতে পারেন।

মেহেদি ও জবা পাতা

মেহেদির সঙ্গে জবা পাতা বেটে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। প্যাকটি শুকনো মনে হলে প্রয়োজনমতো পানি মিশিয়ে নিন। এবার তার সঙ্গে মিশিয়ে নিন কয়েক ফোঁটা লেবুর রস। এবার পুরো মাথায় ও চুলে প্যাকটি ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এভাবে অপেক্ষা করুন মিনিট বিশেক। এরপর ধুয়ে ফেলতে হবে।

মেহেদি ও নারিকেলের দুধ

এক কাপ নারিকেল তেল নিন। এবার তেলটুকু সামান্য গরম করে নিন। এবার তার মধ্যে পরিমাণমতো মেহেদি ও চার টেবিল চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মাথার ত্বক ও চুলে ভালোভাবে মেখে অপেক্ষা করুন ঘণ্টাখানেক। এরপর ধুয়ে ফেলতে হবে। ধোয়ার পর সালফেট মুক্ত শ্যাম্পু দিয়ে চুল আরও একবার পরিষ্কার করে নিন। সপ্তাহে একবার এই প্যাক ব্যবহার করতে হবে।

মেহেদি ও মুলতানি মাটি

দুই টেবিল মেহেদির পেস্ট ও দুই টেবিল চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে সামান্য পানি মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার মিশ্রণটি পুরো মাথায় ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। সারা রাত এই প্যাক চুলে লাগিয়ে রাখলে ভালো ফল পাওয়া যাবে। সেটি সম্ভব না হলে ঘণ্টা দুয়েক রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতেও উপকার পাবেন।

মেহেদি ও কলা

মেহেদির সঙ্গে পাকা কলা মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করলে উপকার পাবেন। এতে চুল কোমল হবে এবং সেইসঙ্গে চুলের গোড়াও শক্ত হবে। পরিমাণমতো মেহেদি বাটার সঙ্গে একটি পাকা কলা চটকে মিশিয়ে নেবেন। এরপর চুলে ও মাথার ত্বকে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এভাবে রেখে দিন মিনিট বিশেক। এরপর ধুয়ে নিন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন