Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

এবার প্যাংগং এলাকায় দ্বিতীয় সেতু বানাচ্ছে চীন

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২২, ৬:৩৪ পিএম

ভারতের উদ্বেগ বাড়িয়ে বিতর্কিত প্যাংগং হ্রদ এলাকায় আরও একটি সেতু বানাচ্ছে চীন। যাতে প্রয়োজনে ভারত-চীন সীমান্ত এলাকায় দ্রুত সেনা পাঠাতে পারে বেইজিং। সম্প্রতি উপগ্রহ চিত্রে এমনটাই ধরা পড়েছে। চীনা সেতু নিয়ে ভারতীয় সেনার কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

প্যাংগং হ্রদ এবং তৎসংলগ্ন এলাকা নিয়ে ভারত-চীনের মধ্যে গত ২ বছর ধরে সমস্যা চলছে। গালওয়ান সংঘর্ষের পরই প্যাংগং হ্রদের দক্ষিণ দিকের স্ট্র্যাটেজিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ একাধিক শৃঙ্গ দখল করেছে ভারতীয় সেনা। এর পরই চীন ওই এলাকায় পরিকাঠামো তৈরিতে জোর দিয়েছে।

ইতিপূর্বে প্রয়োজনীয় সমরাস্ত্র এবং সেনা দ্রুত প্যাংগং এলাকায় পৌঁছে দিতে একটি সেতু বানিয়েছিল বেইজিং। এবার তার চেয়েও অধিক চওড়া এবং শক্তিশালী সেতু তৈরির কাজ প্রায় শেষ করেছে বেইজিং। এমনটাই ধরা পড়েছে উপগ্রহ চিত্রে। সম্প্রতি প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে একটি সেতু তৈরির কাজ শেষ করেছে বেইজিং। সেই কাজ শেষ হতে না হতেই ফের আর একটি সেতু তৈর করতে শুরু করল তারা। যা নিশ্চয়ই তাৎপর্যপূর্ণ। এর পর ভারত কী পদক্ষেপ করে সেটার দিকে তাকিয়ে ওয়াকিবহাল মহল।

১৬ জানুয়ারিতে তোলা উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে নির্মাণকর্মীরা বড়সড় ক্রেনের সাহায্যে সেতুর থামের ওপরে কংক্রিটের স্ল্যাব বসানোর কাজ করছেন। ভারত সীমান্তের প্যাংগং হ্রদের ওপরে ৪০০ মিটার দীর্ঘ সেতু তৈরি করছে চীন। প্রস্থ হচ্ছে ৮ মিটার। সেতুটির একটি প্রান্ত শেষ হচ্ছে লাদাখ সীমান্তে চীনা সেনা ছাউনির খুব কাছে।

তবে সেতুটি নির্মাণ হলে লাদাখ সীমান্তের নিকটবর্তী চীনের রুটোগের সঙ্গে দ্রুত সংযোগ তৈরি করতে পারবে চীনা সেনা। যেখানে রয়েছে মূল সেনা ঘাঁটি। বর্তমানে রুটোগে পৌঁছতে ঘুর পথে ২০০ কিলোমিটার অতিক্রম করতে হয়। সেতু নির্মাণ সম্পূর্ণ হলে তা ১৫০ কিলোমিটারে কমে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। সূত্র: টাইমস নাউ।



 

Show all comments
  • Jagadindu Sen ১৯ মে, ২০২২, ১০:২৬ পিএম says : 0
    America is a great lier
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন


আরও
আরও পড়ুন