Inqilab Logo

রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

নিহত সাংবাদিক শিরিন হত্যার তদন্ত করবে না ইসরায়েল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২২, ৭:৩৭ পিএম

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর হাতে নিহত ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করার কোনো ইচ্ছা নেই দেশটির। বুধবার ইসরায়েলের গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। তবে, শিরিন আবু আকলেহের পরিবার তাঁর হত্যাকাণ্ডের স্বচ্ছ তদন্তের দাবি পুনর্ব্যক্ত করেছে।
ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম হারেৎজে গত মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলি মিলিটারি পুলিশের ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন বিভাগ বিশ্বাস করে- যে তদন্তে ইসরায়েলি সৈন্যদের সন্দেহভাজন বলে ধারণা করা হয় সেই বিষয়ে তদন্ত করাটা ইসরায়েলি সমাজের বিরুদ্ধে যাবে। এর আগেও, ইসরায়েলি বাহিনীর এক সদস্যের হাতে এক ফিলিস্তিনি হত্যার তদন্তে ইসরায়েলি সৈন্য দোষী প্রমাণিত হন। সে সময় ইসরায়েলের সাধারণ জনগণের অনেকেই মনে করতেন যে, ইসরায়েলি সৈন্যকে শাস্তি দেওয়া ঠিক হয়নি।
ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যমগুলোর এমন প্রতিক্রিয়ায় আবু আকলেহের পরিবার অবাক হননি বলে জানিয়েছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, তাঁরা আগে থেকেই জানতেন ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করবে না।
কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার কাছে পাঠানো এক বিবৃতিতে আবু আকলেহের পরিবার বলেছে, ‘ইসরায়েলের কাছ থেকে আমরা এমন আচরণই প্রত্যাশা করেছিলাম। এ জন্যই আমরা চাইনি তাঁরা কোনো ধরনের তদন্তে যুক্ত হোক। আমরা চেয়েছি যারা এই ঘটনার জন্য দায়ী তাঁরা আইনের আওতায় আসুক।’
আবু আকলেহের পরিবার ওই বিবৃতিতে আরও বলেন, ‘আবু আকলেহ যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হওয়ায় আমরা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নির্দিষ্টভাবে আবেদন জানিয়েছি এই বিষয়ে একটি উন্মুক্ত ও স্বচ্ছ তদন্ত করতে- যাতে এই ধরনের হত্যাকাণ্ড বন্ধ হয়।’
৫১ বছর বয়সী সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ গত সপ্তাহের বুধবার ইসরায়েল অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেনিনে ইসরায়েলি সৈন্যদের হাতে মারা যান। সে সময়, আবু আকলেহ সেখানে ইসরায়েলি বাহিনীর রেইড কভার করছিলেন। সূত্র : আল জাজিরা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসরায়েল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ