Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

রোমাঞ্চ ছড়িয়েও ছড়ালো না

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

দুর্দান্ত বোলিংয়ে আলো ছড়ালেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি এই স্পিনারের ছোবলে একটা সময় জমে গিয়েছিল ম্যাচ। দ্বিতীয় সেশনের পানি পানের বিরতির আগেই শ্রীলঙ্কার ৬ উইকেট তুলে নিয়েছিল বাংলাদেশ। মিলছিল নাটকীয় কিছুর আভাস। উজ্জ্বল হয়েছিল মুমিনুল হকের দলের জয়ের সম্ভাবনাও। কিন্তু চাপের মাঝে দারুণ জুটি গড়ে তাতে পানি ঢেলে দিলেন দিনেশ চান্দিমাল ও নিরোশান ডিকভেলা। তাদের চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞার ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ড্র-ই হলো নিয়তি। গতকাল চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগেভাগে সমতা মেনে নেয় দুই দল। ড্র হলো বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট।
গতকাল পঞ্চম দিন দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করা শ্রীলঙ্কার রান যখন ৬ উইকেটে ২৬০, ড্র মেনে নেন দুই দলের সদস্যরা। তখনও দিনের খেলা বাকি ছিল ১৫ ওভার। ৮২ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন তিনি। সাকিবের শিকার একটি। দুই টেস্টের সিরিজটি এখনও সমতায়। আগামী সোমবার মিরপুরে শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।
আগের দিন দুই উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনে হারায় আরও দুটি। পরে দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে দিমুথ করুনারত্নে ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ফিরলে আশা জাগে বাংলাদেশের মনে। কিন্তু দুর্দান্ত ব্যাটিং উপহার দিয়ে দলকে পথ দেখান ডিকভেলা ও চান্দিমাল। এক প্রান্ত আগলে রেখে সতর্ক ব্যাটিং উপহার দেওয়া চান্দিমাল শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন এক ছক্কা ও ৪ চারে ১৩৪ বলে ৩৯ রান নিয়ে। কিছুটা দ্রুত রান তোলা ডিকভেলা করেন ক্যারিয়ারের ২০তম ফিফটি। ৬ চারে ৯৫ বলে ৬১ রানে খেলছিলেন তিনি। টাইগারদের হতাশ করে তারা গড়েন ২০৪ বলে ৯৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি।
পঞ্চম দিনে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সেরা পারফরম্যান্স আসে প্রথম ইনিংসে এক উইকেট নেওয়া তাইজুলের কাছ থেকে। দারুণ সব টার্ন আদায় করে নেন তিনি। এই বাঁহাতি স্পিনারের কারণেই ম্যাচের ফল নিজেদের দিকে নেওয়ার স্বপ্ন কিছু সময়ের জন্যও দেখতে পেরেছিল স্বাগতিকরা।
এদিন মধ্যাহ্ন বিরতির আগে উড়তে থাকা কুসল মেন্ডিস ও প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে শূন্য রানে ফেরান তাইজুল। এরপর দ্বিতীয় সেশনে তার ঘূর্ণিতে কাটা পড়েন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। আরেক বাঁহাতি স্পিনার সাকিব আল হাসান ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে সাজঘরে পাঠালে চালকের আসনে বসে পড়ে বাংলাদেশ। কিন্তু চান্দিমাল ও ডিকভেলার ব্যাটিংয়ে সরে যায় মুমিনুলদের নিয়ন্ত্রণ।
সবিমিলিয়ে ৩৪ ওভারে তাইজুলের শিকার ৮২ রানে ৪ উইকেট। ২৫ ওভারে ১ উইকেট নিতে সাকিবের খরচা ৫৮ রান। অফ স্পিনার নাঈম হাসান ২৩ ও পেসার সৈয়দ খালেদ আহমেদ ৭ ওভার হাত ঘুরিয়ে পাননি উইকেট। মাঝে নাজমুল হোসেন শান্ত করেন এক ওভার। তার মতো আরেক অনিয়মিত স্পিনার মাহমুদুল হাসান জয় এক বল করার পরই আসে ম্যাচ শেষের ঘোষণা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
শ্রীলঙ্কা : ৩৯৭ ও দ্বিতীয় ইনিংস : (আগের দিন ৩৯/২) ৯০.১ ওভারে ২৬০/৬ (করুনারত্নে ৫২, মেন্ডিস ৪৮, ম্যাথিউস ০, ধনাঞ্জয়া ৩৩, চান্দিমাল ৩৯*, ডিকভেলা ৬১*; নাঈম ০/৭৯, খালেদ ০/৩৭, সাকিব ১/৫৮, তাইজুল ৪/৮২, শান্ত ০/২, জয় ০/০)। বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস : ৪৬৫। ফল : টেস্ট ড্র। ম্যাচ সেরা : অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোমাঞ্চ ছড়িয়েও ছড়ালো না
আরও পড়ুন