Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

দক্ষিণাঞ্চলে ডায়রিয়া উদ্বেগ ছড়াচ্ছে ২০ দিন নতুন আক্রান্ত ৮ হাজার

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২২, ৬:২০ পিএম

দক্ষিণাঞ্চলে ডায়রিয়া সংকটের উত্তরন ঘটেনি। গত ২০ দিনে আরো ৮ হাজার ডায়রিয়া আক্রান্ত নারীÑপুরুষ ও শিশু দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য এসেছে বলে স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে। এরমধ্যে গত এক সপ্তাহেই রোগীর সংখ্যা ছিল প্রায় সাড়ে ৩ হাজার। প্রতিদিন গড়ে ৪শ ডায়রিয়া রোগী সরকারী হাসপাতঅলগুলোতে আসছে। তবে এর বাইরে আরো অগনিত রোগী বিভিন্ন বেসরকারী হাসপাতাল ও ক্লিনিক সহ ডাক্তারের চেম্বারে ব্যবস্থাপত্র নিয়ে বাড়ীতে চিকিৎসা গ্রহন করলেও তার কোন পরিসংখ্যান নেই স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে। এনিয়ে গত এক মাসে দক্ষিনাঞ্চলের ৪২ উপজেলায় প্রায় সাড়ে ১২ হাজার ডায়রিয়া রোগী সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করেছে। আর গত সাড়ে ৩ মাসে রোগীর সংখ্যা দাড়িয়েছে প্রায় ৩৭ হাজার । এরমধ্যে অবশ্য ৩৬ হাজার সুস্থ হয়ে উঠেছে বলে বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে।
গতবছর শুরুর দিকেও দক্ষিনাঞ্চলের ৬ জেলা যুড়ে বৃষ্টির অভাবের সাথে খাল ও বদ্ধ জলাশয়ের পানি দুষিত হয়ে পরায় ব্যাপকহারে ডায়রিয়া ছড়িয়ে পরে। এমনকি ঢাকার আইসিডিডিআরবি’র বিশেষজ্ঞ দল দক্ষিনাঞ্চলের কয়েকটি জেলা সফর করে নমুনা সংগ্রহ করে চিকিৎসার পদ্ধতি নির্ধারন করে দেন।
গত বছর মার্চ থেকে জুলাই পর্যন্ত প্রায় ৭৫ ডায়রিয়া রোগী দক্ষিনাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করেন। মৃত্যু হয়েছিল ২৫ জনের। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ ছিল যে, বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের ৪ শয্যার ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ১শ জন রোগীকেও চিকিৎসা দিতে হয়েছে। হাসপাতালের মেঝেতেও স্থান সংকুলন না হওয়ায় মাঠে তাবু খাটিয়েও চিকিৎসা নিয়েছে মানুষ ।
এবছর গত মার্চের মধ্যভাগ থেকে পরিস্থিতির অবনতি শুরু হয়। এপর্যন্ত যে ৩৬ হাজার ৪৮৪ জনের আক্রান্তের কথা বলেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। তার অন্তত ৩৫ হাজারই আক্রান্ত হয়েছে মধ্য মার্চের পরে। এবছরও গত বছরের মতই সর্বাধীক আক্রান্তের সংখ্যাটা বরিশালেই। ২০ মে সকাল পর্যন্ত বরিশালে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৯ হাজার। যার দুই তৃতীয়াংশই বরিশাল মহানগরীতে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্ত জেলা ভোলা। এ দ্বীপ জেলাটিতে ইতোমধ্যে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ৭ হাজার অতিক্রম করেছে। গত মাসের শেষ থেকে পিরোজপুরেও ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকে। এসময়ে জেলাটিতে প্রতি দিন গড়ে দেড় শতাধীক মানুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। জেলাটিতে ইতোমধ্যে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার ছুতে চলেছে। পটুয়াখালীতে ইতোমধ্যে ৬ হাজার ১০৫ জন ডায়রিয়া রোগী বিভিন্ন সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।
বরগুনা জেলায়ও ইতোমধ্যে প্রায় ৪ হাজার ডায়রিয়া রোগী সরকারী হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা গ্রহন করেছেন। ঝালকাঠীর অবস্থাও প্রায় একই। দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে ছোট জেলা ঝালকাঠীতেও ইতোমধ্যে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার ডায়রিয়া রোগী সরকারী হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা নিয়েছেন। ২০-



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডায়রিয়া

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন