Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

পাঞ্জাবের ভিন্নমতাবলম্বী ২৫ পিটিআই এমপি আসন হারালেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

দলের নির্দেশ অমান্য এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদে হামজা শাহবাজকে ভোট দেওয়ায় গতকাল পাকিস্তান তাহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) দলের ২৫ এমপিকে অপসারণ করেছে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)।
নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারী দল ৬৩-এ অনুচ্ছেদ লঙ্ঘনের জন্য পাঞ্জাব বিধানসভার স্পিকার পারভেজ এলাহি কর্তৃক প্রেরিত অসন্তুষ্ট এমপিদের বিরুদ্ধে রেফারেন্স গ্রহণ করেছে, যা দলত্যাগের সাথে সম্পৃক্ত। এ বিষয়ে যুক্তিতর্ক শেষে চলতি সপ্তাহের শুরুতে ইসিপি রায় সংরক্ষণ করে। বুধবার সিদ্ধান্ত ঘোষণার কথা থাকলেও কোনো কারণে কমিশন সিদ্ধান্ত পিছিয়ে দেয়।

পিটিআই তার অসন্তুষ্ট সদস্যদের বিরুদ্ধে স্পিকারের কাছে যাওয়ার পরে পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলির ২৫ জন এমপির বিরুদ্ধে রেফারেন্সটি পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলির স্পিকার পারভেজ এলাহি নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারীর কাছে পাঠিয়েছিলেন।
শুনানির সময় প্রাদেশিক অ্যাসেম্বলির অসন্তুষ্ট সদস্যদের আইনজীবী যুক্তি দিয়েছিলেন যে, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদে পারভেজ এলাহিকে ভোট দেওয়ার বিষয়ে সংসদীয় দলের দেয়া নির্দেশাবলী সম্পর্কে এমপিএ অবগত ছিলেন না। যদিও পিটিআইয়ের আইনজীবী এ দাবি অস্বীকার করেছেন। তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে, সংসদীয় দলের সভা ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল, এর সিদ্ধান্তের পরের দিন প্রেসে রিপোর্ট করা হয়েছিল যে, ২ এপ্রিল পাঞ্জাব বিধানসভার সব এমপিএকে চিফ হুইপ নোটিশ জারি করেছিলেন এবং আরেকটি নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। পিটিআইয়ের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উমর ৪ এপ্রিল, যে এপ্রিলে আরেকটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল যেখানে একই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল এবং ৭ এপ্রিল তৃতীয়বারের মতো নোটিশ পাঠানো হয়েছিল।

প্রেসিডেন্টের ৬৩-কে ধারার প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টের আদেশের আলোকে ইসিপির সিদ্ধান্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সুপ্রিম কোর্ট বলেছে যে, সাংসদদের ভোট ৬৩-এ অনুচ্ছেদে গণনা করা হবে না।
এই রায়টি দৃশ্যত দেশটির রাজনৈতিক অঙ্গনে একটি মারাত্মক ধাক্কা দিয়েছে। নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী হামজা শাহবাজের ভাগ্য ভারসাম্যহীন হয়ে ঝুলছে, বিষয়টিকে অনিশ্চয়তার একটি নতুন রাউন্ডে নিক্ষেপ করেছে এবং ফলাফল সম্পর্কে আরো বিভ্রান্তি তৈরি করে।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে যে, নির্বাচন কমিশন পিটিআই এমএনএর বিরুদ্ধে দায়ের করা রেফারেন্স প্রত্যাখ্যান করেছিল, যিনি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের আগে বিরোধীদের পাশে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। রেফারেন্স প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ