Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী থাকতে পারছেন না হামজা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০২২, ১১:১১ এএম

নতুন রাজনৈতিক সঙ্কটে পড়েছে পাকিস্তান। দেশটির নির্বাচন কমিশন দলত্যাগীদের আইন পরিষদের সদস্যপদ বাতিল করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর পদে হামজা শাহবাজ আর থাকতে পারছেন না বলে বিশ্লেষকেরা বলছেন। কেউ কেউ বলছেন, ওই সিদ্ধান্তের ফলে ইতোমধ্যেই হামজার মুখ্যমন্ত্রিত্বের অবসান হয়েছে, পাঞ্জাবে এখন আর কোনো সরকারই নেই।

তিনি বলেন, অনুচ্ছেদ ১৩০ অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী পদে দ্বিতীয় দফা নির্বাচন হবে। যিনি বেশি ভোট পাবেন, তিনিই হবেন মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, হামজা তার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছেন। ফলে পাঞ্জাবে এই মুহূর্তে কোনো সরকার নেই। তিনি বলেন, পাঞ্জাবে নতুন গভর্নর নিয়োগের পর আইন পরিষদের নতুন সভা আহ্বান করতে হবে।

উল্লেখ্য, ইমরান খান পদত্যাগ করার পর তার দল পিটিআইয়ের ২৫ জন সদস্য দল ত্যাগ করে হামজা শরিফের পক্ষে যায়। তারা হামজাকে পাঞ্জাবে মুখ্যমন্ত্রী পদে ভোট দেয়। ইসিপি বলছে, দলত্যাগ করায় ওই ২৫ জনের সদস্যপদ বহাল নেই।


পাকিস্তান নির্বাচন কমিশনের (ইসিপি) সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় বিশ্লেষক মুনিব ফারুক বলেন, হামজা শাহবাজ আর পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নন। প্রদেশটিতে আর কোনো সরকার নেই।

জিও নিউজ প্রোগ্রাম 'আপাস কি বাত'-এ ফারুক বলেন, এত বিপুল সংখ্যক লোক আগে কখনো পদচ্যুত হননি। এখন বিষয়টি ১৬ এপ্রিলে ফিরে যেতে হবে।

এর ফলে হামজার মুখ্যমন্ত্রিত্বও শেষ হয়ে গেছে বলে অনেকে দাবি করছেন।

এদিকে সিনিয়র সাংবাদিক হামিদ মির বলেছেন, হামজা আর পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নন। আবার ভোট হতে হবে। দলত্যাগীদের ব্যাপারে ইসিপির সিদ্ধান্তই সঠিক।

সূত্র : জিও নিউজ



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন