Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বন্যায় তলিয়ে গেছে সিলেট-সুনামগঞ্জের ৬৫৭ কি:মি রাস্তা. বেশি ক্ষতি সিলেটে

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০২২, ৩:৩৭ পিএম

বন্যায় সিলেট ও সুনামগঞ্জে ডুবে ১৫৩টি সড়কের ৬৫৭ কিলোমিটার অংশ। ২ জেলার বেশ কিছু উপজেলার অভ্যন্তরীণ ও জেলা সদরের সঙ্গে রয়েছে যোগাযোগ বন্ধ। এতে ব্যাপক দুর্ভোগে পড়েছেন ২ জেলার অন্তত ২০ লাখ মানুষ। তবে এখন পর্যন্ত এসব সড়ক পানির নিচে ডুবে থাকায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করতে পারেনি সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) এবং স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি)।


বন্যায় সড়কের সবচেয়ে বেশি সড়কের ক্ষতি হয়েছে সিলেট জেলায়। জেলায় সওজ ও এলজিইডির আওতাধীন মোট ১২১টি সড়কের ৩৩২ কিলোমিটার সড়ক পানিতে ডুবে গেছে। এ ছাড়াও ভেঙে গেছে ২টি কালভার্ট। এলজিইডি সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইনামুল কবীর বলেন, 'বন্যায় ১১১টি রাস্তার ২৬৭ কিলোমিটার অংশে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সদর উপজেলা ও কোম্পানীগঞ্জে ভেঙেছে ২টি কালভার্ট। তবে রাস্তার উপরে এখনো পানি থাকায় নির্ধারণ করা যাচ্ছে না ক্ষয়ক্ষতির আর্থিক পরিমাণ।'

সড়ক বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, 'সিলেটের আন্তঃজেলা ১০টি প্রধান সড়কের ৬৫ কিলোমিটার অংশ হয়েছে প্লাবিত, এর মধ্যে ৫টি সড়কে সম্পূর্ণ বন্ধ আছে যান চলাচল। জকিগঞ্জে বাঁধ ভেঙে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ায় ২টি সড়কে দ্রুত বাড়ছে পানি।'

সড়ক বিভাগ সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, ' বন্যা কবলিত হয়েছে জেলার ৭টি সড়ক। এর মধ্যে হয়েছে ৭০ কিলোমিটার এলাকা প্লাবিত। কিন্তু পানি বাড়তে থাকায় এখনো ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ সম্ভব হচ্ছে না।'

এলজিইডি সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুব আলম বলেন, জেলায় ২৫টি রাস্তার ১৫৫ কিলোমিটার অংশ ইতিমধ্যে ক্ষতি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গ্রামীণ জনপদের রাস্তা। এ ছাড়াও নতুন করে প্লাবিত হয়েচে আরও ১০০ কিলোমিটার রাস্তা।এছাড়াও তিনি বলেন, 'দোয়ারা বাজার, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর ও সদর উপজেলায় একটি করে ৪টি কালভার্ট বন্যার তোড়ে সম্পূর্ণ ভেঙে গেছে। বন্যার পানি কমলেও যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হতে বেশ সময় লাগবে।' এদিকে, আজ শনিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটের সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানির কিছুটা কমলেও তা এখনো সবকটি পয়েন্টের বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে নতুন করে বিপদসীমা অতিক্রম করেছে সুনামগঞ্জের পুরাতন সুরমা।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিলেট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ