Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

সরকার বিএনপিকে এবার টোপে ফেলতে পারবে না : ড. মোশাররফ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ মে, ২০২২, ৪:১২ পিএম

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগ অতীতেও নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা কাণ্ড-কারখানা করেছে, অপকৌশল নিয়েছে। বারবার জনগণকে ধোঁকা দিয়েছে। তাদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে। বিএনপিকেও বার বার টোপে ফেলা হয়েছে। এবার বিএনপিকে সরকার কোনো টোপে ফেলতে পারবে না। জনগণ সেই প্রতারণার শিকার হবে না।

আজ শনিবার (২১ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন আহাম্মেদ পিন্টুর সপ্তম শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে সম্মিলিত ছাত্র-যুব ফোরাম। নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপের প্রসঙ্গ টেনে খন্দকার মোশাররফ বলেন, আগে শেখ হাসিনাকে পদত্যাগ করতে হবে। সংসদ বাতিল করতে হবে। এরপর নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠন করতে হবে। সেই সরকার যে নির্বাচন কমিশন গঠন করবে, সেই কমিশনের সঙ্গে আমরা সংলাপ করবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে যাওয়ার প্রশ্নই উঠে না। অতএব, এই নির্বাচন কমিশন সংলাপের আহ্বান করলেই কী, আর না করলেই কী? বিএনপি এ বিষয়ে দু পয়সার দামও দেয় না।

মোশাররফ বলেন, কিছুদিন আগে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডয়েচে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তিনি আর প্রধানমন্ত্রী হবেন না। চারবার তিনি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। তিনি আসলে বুঝে গেছেন আগামী নির্বাচন পর্যন্ত এ সরকার আর টিকে থাকতে পারবে না। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের এক মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসবে। সেই নির্বাচনে আমাদের সঙ্গে যারা থাকবে, তাদের নিয়ে সরকার গঠন করা হবে। সেই সরকারের প্রধানমন্ত্রী হবেন খালেদা জিয়া। শেখ হাসিনা তো ডয়েচে ভেলেকে বলেছেন, তিনি আর প্রধানমন্ত্রী হবেন না। ওবায়দুল কাদেরকে বলেতে চাই, ভবিষ্যতে আপনারা যে দিন ক্ষমতায় আসবেন, সেদিন আপনাদের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন— তা জনগণকে জানান।

বক্তব্য দিয়ে বিএনপির লক্ষ্য অর্জন হবে না বলে মন্তব্য করে মোশাররফ বলেন, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেছেন, রাজপথে থাকতে হবে। সরকারকে সরাতে প্রোগ্রাম হবে, কর্মসূচি আসবে। পদ্মা সেতু ও খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে খন্দকার মোশাররফ বলেন, যারা ক্ষমতায় তারা ভালো নেই। তাদের ঘুম হয় না। ঘুম হয় না বলেই তাদের মুখে এ ধরনের অসংলগ্ন ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য আসে। আগের রাতে ঘুম হলে এ ধরনের বক্তব্য একজন মানুষ দিতে পারে না। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে পদ্মা সেতু থেকে টুস করে ফেলে দেওয়ার কথা বলেছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশে কী প্রমাণিত হয়? খালেদা জিয়াকে পদ্মা সেতু থেকে টুস করে ফেলে দিয়ে হত্যার ষড়যন্ত্র করছেন। খালেদা জিয়াকে হত্যার হুমকি তিনি দিয়েছেন। খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের জন্য দেশের জনগণের নিকট অনতিবিলম্বে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান বিএনপির এই নেতা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ