Inqilab Logo

রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

দুদিন পর সুরমায় পানি বাড়ছে, সেই সাথে বাড়ছে সিলেটে পানিবাহিত রোগ

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২২, ১:২০ পিএম

গত দুইদিন কমার পর আজ রোববার) আবার বাড়ছে সিলেটের সুরমা নদীর পানি। শনিবার সন্ধ্যা থেকে আজ রোববার সকাল ৯ টা পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি কানাইঘাট পয়েন্টে ৪ সেন্টিমিটার বেড়েছে। তবে সিলেট পয়েন্টে এ নদীর পানি অপরিবর্তিত আছে। অপরদিকে ফেঞ্চুগঞ্জে অব্যাহত রয়েছে কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি।


এদিকে, সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে সিলেটে। তবে কুশিয়ারার পানি বাড়ায় বাঁধ ভেঙে ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ নতুন করে আশংকা দেখা দিয়েছে প্লাবিত হওয়ার। যদিও পানি উন্নয়ন বোর্ড, সিলেটের উপ সহকারী প্রকৌশলী নিলয় পাশা বলছেন, সিলেটের বন্যা পরিস্থিতির আর খুব একটা অবনতি হওয়ার আশংকা নেই। ৪/৫ দিনের মধ্যে বেশিরভাগ এলাকা থেকেই নেমে যাবে পানি।

অপরদিকে, বন্যা পূর্বাভাস ও সতকর্তীকরণ কেন্দ্রের তথ্যানুযায়ী, সুরমা কুশিয়ারা ব্যতীত দেশের উত্তর পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদ নদী সমূহের পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, আগামী ২৪ ঘন্টায় পর্যন্ত কতিপয় স্থানে সময়বিশেষ দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে। এছাড়া দেশের উত্তরপূর্বাঞ্চলের সিলেট-সুনামগঞ্জ জেলার কতিপয় স্থানে বন্যা পরিস্থিতি উন্নতি হতে পারে, অপরদিকে নেত্রকোনা জেলার নি¤œাঞ্চলের কতিপয় স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।

আজ সকাল ৯টা পর্যন্ত উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়েছে সিলেটের শেরপুর ও লাতুতে যথাক্রমে ৩৫ মিলিমিটার। গত ২৪ ঘন্টায় আসামের শিলচরে ৭১.০ মিলিমিটার ও সিকিমের গ্যাংটকে ২৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

এদিকে, বন্যা দীর্ঘায়িত হওয়ায় বানভাসিদের সংকট আরও বেড়েছে। ত্রাণ নিয়ে হাহাকারও দেখা দিয়েছে অনেক জায়গায়। এখন পর্যন্ত ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করছেন অনেকে। এরমধ্যে গত শনিবার কোম্পানীগঞ্জে ত্রাণ নিয়ে দুর্গতদের মধ্যে কাড়াকাড়ি ও হট্টগোলের ঘটনা ঘটে। বন্যায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন কৃষক ও মৎস্যজীবীরা। বোরোর পর তলিয়ে গেছে আউশ ধানের বীজতলা। এছাড়া ভেসে গেছে হাজারও খামারের মাছ। এদিকে বন্যায় সিলেটে পানিবাহিত রোগের প্রকোপ বেড়েছে জানিয়ে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা এস এম শাহারিয়ার বলেন, ইতোমধ্যে শতাধিক লোক ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার তথ্য আমরা পেয়েছি। চর্মরোগও বাড়ছে। পানি কমলে রোগবালাই আরও বাড়তে পারে আশংকা প্রকাশ করে তিনি বলেন, পানিবাহিত রোগ যাতে ছড়িয়ে না পড়ে এ জন্য আমরা এরইমধ্যে ১৪০ টি মেডিকেল টিম গঠন করেছি। তারা বিভিন্ন উপজেলায় বন্যার্তদের সেবায় কাজ করছে। ত্রাণের কোন সংকট নেই জানিয়েছে সিলেটের জেলা প্রশাসক মো মজিবর রহমান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন