Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

দশকের দাম্পত্য ১০ দিনেই শেষ!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

‘এটাই কী ভালোবাসা...’? যদি ইংল্যান্ডের ব্র্যাডফোর্ডের ২৬ বছরের পেশাদার নিরাপত্তারক্ষী টোনি গার্নেট কিংবা ২২ বছরের সোফিয়াকে এই প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা হয়। তারা এক বাক্যে জবাব দেবেন, হ্যাঁ। কিন্তু পরিবার বলছে, ঘোরতর অন্যায়!
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ থেকে জীবন বাঁচাতে জার্মানির বার্লিন হয়ে সোফিয়া আশ্রয় পেয়েছিলেন ইংল্যান্ডের ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারের ব্র্যাডফোর্ডে টোনি-লোরনা দম্পতির বাড়িতে। টোনি-লোরনার দুই সন্তানসহ এক দশকের হাসিখুশি সংসার নাকি আচমকা দাবানলে পড়ে গেছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরক অভিযান শুরু হতেই নেটমাধ্যমে এই দম্পতি জানিয়েছিলেন, ইউক্রেন যুদ্ধে ঘরছাড়াদের জন্য তাদের বাড়ির দরজা খোলা। কিন্তু সেই খোলা দরজা দিয়েই যে ‘অতিথি’ সোফিয়ার সঙ্গে তার স্বামী বেরিয়ে যাবেন, দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারেননি লোরনা!

বিজ্ঞাপনে সাড়া দিয়ে বার্লিন থেকে ওই দম্পতির ব্র্যাডফোর্ডের বাড়িতে ওঠেন পেশায় তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সোফিয়া। তিনি ইউক্রেনের লুভিভের বাসিন্দা এবং যুদ্ধে জীবন বাঁচাতে দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন।
সোফিয়ার থাকার জন্য টোনি-লোরনা তাদের দুই মেয়ের ঘর ছেড়ে দিয়েছিলেন। মেয়েরা থাকছিল মা-বাবার সঙ্গেই। ভালই চলছিল। কিন্তু দশম দিনেই ঘটে ‘বিস্ফোরণ’! টোনির সঙ্গে সোফিয়ার ভাবের আদানপ্রদান ধরে ফেলেছিলেন লোরনা।

সোফিয়াকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন লোরনা। কিন্তু সবাইকে চমকে দিয়ে সোফিয়ার সঙ্গেই ব্যাগে নিজের জিনিসপত্র গুছিয়ে বাড়ি ছাড়েন টোনিও! ছয় এবং তিন বছরের দুই সন্তানকে দু’পাশে নিয়ে টোনিকে বিদায় জানান হতবাক লোরনা। টোনি-লোরনার দশ বছরের সুখের দাম্পত্য ভাঙল মাত্র দশ দিনে!
আপাতত সোফিয়াকে নিয়ে মা-বাবার বাড়িতেই উঠেছেন টোনি। অন্য একটি বাড়ি দেখে চলে যাওয়ার কথাও ভাবছেন। লোরনার কথা ভেবে অবশ্য দুঃখও আছে টোনির। নিজেই বলছেন, ‘ওর তো কোনও দোষ নেই। কিন্তু কী করব, সোফিয়াকে ছাড়া যে বাঁচব না!’
আর সোফিয়া বলছেন, ‘আমি জানি আমাদের আগামী দিনের পথ বন্ধুরতম হতে চলেছে। কিন্তু এটাই আমাদের ভালোবাসার কাহিনি। টোনিকে প্রথম দিন দেখেই বুঝতে পেরেছিলাম, ও আমার জন্যই, আর কারও না।’ সূত্র : ডেইলি মেইল, দ্য সান ইউকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন