Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

গুচ্ছ ভর্তিতে আসন ফাঁকা রেখে ভর্তি বন্ধের প্রতিবাদে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

গুচ্ছ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় কৃতকার্যদের ভর্তির সুযোগ না দিয়ে আসন ফাঁকা রেখে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বন্ধের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা।

গতকাল রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আন্দোলনের সমন্বয়ক শফিকুল ইসলাম শুভ, ভর্তিচ্ছু আকাশ কুমার, রেহানা খাতুন, তাসরিফ, ত্বোহা, অমিত সহ আরো অনেকে।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, গুচ্ছ পদ্ধতিতে এবারই প্রথম পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। এ পদ্ধতিতে পরীক্ষা না হলে আমরা আরো পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পেতাম। একটা পরীক্ষা খারাপ হলে আরেকটা ভালো হত। একটা সময় আমার প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতাম, এমনকি ইউনিট ভিত্তিক টাকা দিতাম। ভাইভা দেওয়ার জন্য ভার্সিটি গুলোতে উপস্থিত হতাম। অথচ আমাদের এসব ভোগান্তি কমাতেই গুচ্ছ পদ্ধতি করা হয়েছিল। এখন আবার আসন ফাঁকা রেখেই ভর্তি বন্ধ করা হচ্ছে। একটা পরীক্ষা সারা জীবনের কষ্ট হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন। সবই হলো তাদের (শিক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ) মন মতো, মাঝখান থেকে আমরা অনেকগুলো ভার্সিটিতে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগটা হারালাম। আর এখন সিটের জন্য লড়াই করতে হচ্ছে।

গুচ্ছে ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে একই সাথে পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলা হলেও এসকল বিশ্ববিদ্যালয়ে কীভাবে আলাদা আলাদাভাবে ক্লাস পরীক্ষা নিবে সে ব্যাপারে কোনো সুনির্দিষ্ট নীতিমালা গ্রহণ না করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ইচ্ছে মতো একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বলেন, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও এবার প্রথমবারের মতো গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হয়। কিন্তু তাদের কাউকে তো অধিকার আদায়ে একটা সিটের জন্য মাঠে নামতে হলো না! তাহলে আমাদের কেন নামতে হলো? এখন সেশনজট এইটা সেইটা নিয়া তাদের সমস্যা, কিন্তু যখন একসাথে ২০টা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ দেয় এবং মূল কাগজ পত্র ছাড়াই ভর্তি নেয় তখন তাদের এসব মাথায় ছিল না?

ভর্তিচ্ছু এসব শিক্ষার্থী বলেন, তারা এইবছর (২০২১-২২শিক্ষাবর্ষ) গুচ্ছ ভর্তি নিয়মে পরিবর্তন আনতেছে, তাহলে আমাদের (২০২০-২১) দিয়ে কি তারা ট্রাই করেছিল যে সিস্টেমটা কেমন হয়? আমাদের জীবনের কি কোন মূল্য নেই? আমাদের সমস্যা সমাধান করতে হবে, ভর্তি নিতে হবে।

তারা দাবি করেন, করোনা ও গুচ্ছ পদ্ধতি এইবার প্রথম এজন্য আমাদের দাবি মানতে হবে, ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্কুলারে যত সিট উল্লেখ আছে একটিও যেন ফাঁকা না থাকে, প্রয়োজনে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি লিস্ট দেখাতে হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ